গহীন পাহাড়ে ‘গোলাগুলি’তে প্রাণ হারালো কুখ্যাত রোহিঙ্গা ডাকাত জকির ও দুই সহযোগী

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের শালবন ক্যাম্পের কাছে গহীন পাহাড়ে র‌্যাবের সাথে ডাকাতদলের ‘গোলাগুলি’তে কুখ্যাত রোহিঙ্গা ডাকাত সর্দার জকির আহমদ ওরফে বাহিনী প্রধান জকিরসহ তিন ডাকাত নিহত হয়েছে। এসময় র‌্যাবের এক সদস্য হাতে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে বিদেশী পিস্তলসহ ৯টি অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টার দিকে টেকনাফ শালবন গহীণ পাহাড়ে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারস্থ র‍্যাব-১৫ অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে টেকনাফের শালবন গহীণ পাহাড়ে কুখ্যাত রোহিঙ্গা ডাকাত জকির বাহিনীর প্রধান জকিরসহ একদল সন্ত্রাসী অবস্থান করছে।

এই তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের বিশেষ অভিযানিক দল দ্রুত সেখানে বিকেল তিনটায় অভিযান চালায়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গুলি চালাতে থাকে। র‌্যাবও আত্মরক্ষায় পাল্টা গুলি চালায়। ঘন্টাখানেক গোলাগুলির পর সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থলে তিনজনের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়।

সুত্র মতে, টেকনাফের জাদিমোরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের প্রধান সড়ক থেকে দুই কিলোমিটার ভেতরে ক্যাম্পের ত্রাস হিসেবে পরিচিত কুখ্যাত রোহিঙ্গা ডাকাত সর্দার জকির আহমদ ওরফে জকির সেখানে আশ্রয়স্থল বানিয়ে গড়ে তুলে অপরাধ জগৎ। দীর্ঘদিন ধরে অপরাধ জগত চালিয়ে আসছিল সে।

সুত্র জানায়, ওই পাহাড়ে অবস্থান করে ডাকাত বাহিনীটি খুন, ধর্ষণ, ইয়াবা কারবার, মানবপাচার, অপহরণসহ নানা অপরাধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল।