কক্সবাজার চেম্বারের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছৈয়দ মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে কালেরকণ্ঠের সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা

গৃহপরিচারক থেকে হাজার কোটি টাকার মালিক ‘পাওয়ার আলী’!

গতকাল দৈনিক কালেরকণ্ঠ প্রকাশিত পাওয়ার আলীর আছে ৫০০ কোটি টাকা শীর্ষক সংবাদটি আমি নি¤œস্বাক্ষরকারীর দৃষ্টি গোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্যে প্রনোদিত। পিতার এবং শহরের এন্ডারসন রোডে জমি প্রতারনার মাধ্যমে বাগিয়ে নিয়েছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্যে প্রণোদিত। আমি কালেরকণ্ঠের কোন সাংবাদিকের সাথে কোন বক্তব্য দেয়া তো দূরের কথা পর্যন্ত বলিনি। আমার নামে জমি কিনে স্ত্রীর নামে হেবা করে দেওযার কথাও ভিত্তিহীন। আমি এ ধরনের কোন বক্তব্য গণমাধ্যমে প্রদান করিনি। আমার উদ্ধৃত্তি দিয়ে কালেরকণ্ঠের প্রতিবেদক যে তথ্য উপস্থাপন করেছেন তার কোন অংশই আমি জানি না এবং আমার বক্তব্য নয়। আলী ভাই কখনো আমার সাথে প্রতারণা কিংবা জালিয়াতি করেনি এবং বরং বিভিন্ন সময় পারিবারিক সমস্যায় ওনার সহযোগিতা পেয়েছি। কক্সবাজারে নানা সমস্যা কিংবা করোনাকালে তিনি সার্বিক সহযোগিতা দিয়েছেন সকলের দ্বারে দ্বারে এটার প্রমাণ সকলে জ্ঞাত। আমি উক্ত সংবাদে আমার বক্তব্য ও তথ্য উপাত্ত উপস্থাপনে যে মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। উক্ত সংসদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদে
মোহাম্মদ কাইয়ুম
মোবাইল : ০১৭১১৩১১৯২৫।