ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদন

মমতাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে বিজেপি!

বিশ্ব ডেস্ক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রাণহানির আশঙ্কা করছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল। রোববার সে আশঙ্কার কথা প্রকাশ্যে এনেছেন পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তারপর থেকেই তোলপাড় রাজ্য রাজনীতিতে। আজ তিনি বলেছেন, ‘ভোটে সাফল্য না পেলেই মমতাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করতে পারে বিজেপি।’

দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়ে দলীয় সভায় বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেছেন, ‘ভোটে হারলেই মমতাকে সরাতে ছক করবে বিজেপি। গোপনে হয়তো লোক ভাড়া করার কাজ চলছে। রাজ্যে অশান্তি ছড়াতে বহিরাগতদের আনা হচ্ছে। তবে আমরা সব নজরে রাখছি। ওদের পরিকল্পনা বানচাল করবোই।’

এই দক্ষিণ ২৪ পরগানার ডায়মন্ড হারবার যাওয়ার পথেই গত বৃহস্পতিবার হামলা চলে সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার গাড়িতে।

এই বিষয় বিজেপি শিবিরকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন সুব্রতবাবু। তার কথায়, ‘বিজেপি দলের সভাপতির গাড়িতে পাথর ছোঁড়ার জন্য নিজেরাই লোক নিয়োগ করেছিল। তদন্তের পর এই তথ্য নিশ্চিৎ হয়েছে।’

পঞ্চায়েতমন্ত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘মানুষের সমর্থন হারিয়েই এখন ডাহা মিথ্যা বলছেন তৃণমূল নেতারা।’ বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং বলেছেন, ‘মারামারি আর খুনোখুনি তৃণমূলের কাজ। দলের অন্দরেই মমতার নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। একের পর এক নেতা, বিধায়ক, সাংসদ মুখ খুলছেন। ওদের দলের লোকরাই এখন মমতার আতঙ্ক।’

এ প্রসঙ্গে রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গাঙ্গুলী বলেছেন, ‘গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই জয়ে বিশ্বাসী বিজেপি। মানুষের সহানুভূতি পেতেই সুব্রত মুখোপাধ্যায় মমতাকে হত্যার ষড়যন্ত্রের মতো অভিযোগ তুলছেন।