কক্সবাজার সদরের পোকখালীর মাইসুমা এখন বান্দরবানের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট

কক্সবাজার সদরের পোকখালীর মাইসুমা এখন বান্দরবানের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজার সদর উপজেলার পোকখালী ইউনিয়নের ডাঃ মোস্তাক আহমেদের মেয়ে মাইসুমা সুলতানা এখন বান্দরবান জেলার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। পদোন্নতি পেয়ে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হয়েছেন কক্সবাজারের তুখোড় মেধাবী এই নারী।

জানা গেছে, জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মাইসুমা সুলতানা ২০১৮ সালের পহেলা মার্চ বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসে যোগদান করেন। নেত্রকোণায় ২০১৮ সালের পহেলা মার্চ থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সহকারী জজ হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। এরপর পদোন্নতি পেয়ে তিনি ২২ নভেম্বর বান্দরবান জেলায় জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে যোগদান করেন তিনি।

পারিবারিক সুত্র জানান, তিনি কক্সবাজার সদর উপজেলা পোকখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, চট্টগ্রাম হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর, চটগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ের উপর এলএলবি করেন।

এলএলবির শেষে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রভাষক ও ২০১৮ সালের পহেলা মার্চ বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসে যোগদান করেন।

তার ছোট ভাই তাজমির আহমেদ। পরিবারের মধ্যে রয়েছেন বাবা ডাঃ মুস্তাক আহমেদ ও মা জন্নাত আরা বেগম। ভাই-বোনদের মধ্যে মাইসুমা সুলতানা হলেন তৃতীয়। বড় বোন উম্মে হাসিনা মিনা চটগ্রাম কলেজ থেকে প্রাণীবিজ্ঞানে স্নাতক এবং ইডেন কলেজ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। বর্তমানে তিনি ব্যবসায় জড়িত রয়েছেন। আছমাউল হোসনা আফসানা চটগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন বিষয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর। তিনিও কক্সবাজার সিটি কলেজে শিক্ষকতা পেশায় রয়েছেন। ছোট ভাই তাজমির আহমেদ চটগ্রাম ইনডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটিতে আইন বিষয়ে স্নাতক কোর্সে অধ্যয়নরত আছেন।

মাইসুমা সুলতানার দাদা ছিলেন মরহুম এজাহার মিয়া। তিনি ছিলেন তৎকালীন জমিদার। আর তার নানা মরহুম ফররুখ আহমেদ ছিলেন তৎকালীন সাব-রেজিস্ট্রার।