কাবা শরিফে নামাজ ও মদিনায় রওজা জেয়ারত ‘সবার জন্য উন্মুক্ত’

কাবা শরিফে নামাজ ও মদিনায় রওজা জেয়ারত ‘সবার জন্য উন্মুক্ত’

আলহামদুলিল্লাহ! আজ থেকে মসজিদে হারাম তথা কাবা শরিফে নামাজ আদায় সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ সাত মাস বন্ধ থাকার পর নিজ দেশের নাগরিক ও দেশটিতে বসবাসকারী বিদেশিদের জন্য মসজিদে হারামে নামাজ পড়ার অনুমতি দিয়েছে সৌদি আরব। আজ রোববার (১৮ অক্টোবর) সকালে দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশন এ তথ্য জানিয়েছে।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থকে শর্তসাপেক্ষে সীমিত পরিসরে নামাজ পড়ার অনুমতি দেয় হারামাইন কর্তৃপক্ষ। এ সময় নামাজ আদায় চললেও তা ছিল সীমিত। সাধারণ মুসল্লিদের মসজিদে প্রবেশ করার অনুমতি ছিল না। শুধু ইমাম, মুয়াজ্জিনসহ মসজিদে হারামের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সেখানে নামাজ আদায় করতে পারতেন।

রোববার ১৮ অক্টোবর মোতাবেক ১ রবিউল আউয়াল থেকে মদিনার মসজিদে নববির বিশেষ স্থান রিয়াজুল জান্নাহতে নামাজ ও রওজা শরিফ জেয়ারত ও সালাম প্রদানের আনুষ্ঠানিকতাও আজ শুরু হয়েছে। প্রতিদিন ফজর, জোহর, আসর ও মাগরিবের নামাজের পর এ কার্যক্রম চালু থাকবে। শর্তসাপেক্ষে নিবন্ধন করেই এ আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে হবে।

গত ১৭ মার্চ এক ঘোষণায় সৌদি সরকার মক্কা ও মদিনার প্রধান দুই মসজিদ ছাড়া দেশটির বাকি সব মসজিদে জামাতে নামাজ স্থগিত করে নির্দেশ জারি করেছিল দেশটির কর্তৃপক্ষ। পরে এ দুটি মসজিদেও সর্বসাধারণের জন্য জামাতে নামাজ আদায় বন্ধ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৪ অক্টোবর থেকে পবিত্র কাবা শরিফে করোনা-পরবর্তী প্রথম ওমরাহ শুরু হয়। আজ সবার নামাজের জন্য কাবা শরিফ প্রাঙ্গণ উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। মদিনার মসজিদে নববির রিয়াজুল জান্নাহ এবং রওজা শরিফ জেয়ারতও আজ থেকে শুরু হয়েছে।

সৌদি আরবে রোববার পর্যন্ত বৈশ্বিক মহামারি করোনায় ৩ লাখ ৪১ হাজার ৮৫৪ জন আক্রান্ত হন। এতে মারা গেছেন ৫ হাজার ১৬৫ জন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!