রামুর মইশকুমে ফসলি জমি থেকে নির্বিচারে বালি উত্তোলন, ইউএনওকে অভিযোগ

রামুর মইশকুমে ফসলি জমি থেকে নির্বিচারে বালি উত্তোলন, ইউএনওকে অভিযোগ

বালি ‍উত্তোলন (প্রতীকী ছবি)

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের কাছের উপজেলা রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের মইশকুম এলাকায় ব্যক্তিমালিকানাধীন জমি থেকে নির্বিচারে বালি উত্তোলন করে পাচার করছে দুই ‘প্রভাবশালী’র নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট। ইউনিয়নের পূর্ব পাড়ার সাবেক মেম্বার এরশাদ আলীর ছেলে জাফর আলম ও একই ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা লামার পাড়ার মাওলানা মো. ইউনুসের ছেলে কফিল উদ্দিনের নেতৃত্বে টানা ১৪ দিন ধরে সমতল জমি থেকে বালি তুলে পাচার করছেন।

এই ঘটনার প্রতিকার চেয়ে জমির মালিক সৌদি প্রবাসি ফিরোজ মিয়া রামু উপজেলা কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

তিনি লিখিত অভিযোগে দাবি করেন, তিনি রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের মইশকুম মৌজার ৯.৪৯ একর জমি রেজিষ্ট্রিমূলে কিনেছেন। ওই জমি বর্তমানে তার দখলে রয়েছে। কিন্তু তিনি সৌদি আরবে থাকার সুযোগে স্থানীয় জাফর আলম ও কফিলের উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট ‘সন্ত্রাসি কায়দায়’ তার ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি থেকে মেশিন লাগিয়ে বালি উত্তোলন ও পাচার করে যাচ্ছেন।

অভিযোগ মতে, গত পহেলা অক্টোবর থেকে ওই জমির বালি মেশিন লাগিয়ে উত্তোলন করে লাখ লাখ টাকায় পাচার করে দিচ্ছেন। গত ৯ অক্টোবর ফিরোজ মিয়ার ভগ্নিপতি এনামুল হক ঘটনাস্থলে গেলে ওই বালু পাচারকারি চক্র তার উপর হামলা করতে উদ্যত হয় এবং ধাওয়া করে তাড়িয়ে দেয়। ওই সময় বালি তুলতে বাধা দিলে তাকে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়।

কক্সবাজার সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের জুমছড়ি এলাকার মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে সৌদি প্রবাসি ফিরোজ মিয়ার ভগ্নিপতি এনামুল হক জানান, ওই প্রভাবশালী চক্রটি ৪টি ডাম্পার লাগিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার ফুট বালি উত্তোলন করে চাষযোগ্য জমিগুলো চাষ অনুপযোগী ও গর্ত করে ফেলেছে।

তিনি বলেন, আমি কিংবা ফিরোজ মিয়ার পরিবারের কোন লোকজন অথবা কোন চাষা ওই জমিতে গেলে প্রাণে মেরে ফেলা হবে বলে হুমকি দিয়েছে তারা। তারা নিকটাত্মীয়ের জমি কেটে বালি উত্তোলন করে প্রায় ৫ লাখ টাকার বালি বিক্রি ও পাচার করেছে।

এই ঘটনায় রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। তারা ওই জমি থেকে মাটি কাটা, পাচার রোধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!