চকরিয়ায় বনভূমি থেকে বালু উত্তোলন, দিনভর অভিযানে ১০ ড্রেজার ধ্বংস ও দুইজনকে কারাদন্ড

চকরিয়ায় বনভূমি থেকে বালু উত্তোলন, দিনভর অভিযানে ১০ ড্রেজার ধ্বংস ও দুইজনকে কারাদন্ড

এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের চকরিয়ায় সংরক্ষিত বনভূমি থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ১০টি ড্রেজার মেশিন ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় সরকারি কাজে বাধা দেয়া এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির দায়ে দুইজন ব্যক্তিকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের খুটাখালী ছড়ার মধুরশিয়া গোদার ফাঁড়ি, মেধা কচ্ছপিয়া খাল ও ফুলছড়ি খালে এই পৃথক অভিযান পরিচালনা করেন কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক মোহাম্মদ সোহেল রানা এবং ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর হোসেন।

এ সময় ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম, ফুলছড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা ছৈয়দ আবু জাকারিয়া, জোয়ারিয়ানালা রেঞ্জ কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ টিটুসহ থানা পুলিশ ও বনবিভাগের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর হোসেন বলেন, কিছুদিন ধরে কতিপয় বালু ব্যবসায়ী খুটাখালী ছড়ার মধুরশিয়া গোদার ফাঁড়ি, মেধা কচ্ছপিয়া খাল ও ফুলছড়ি খালে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে তা বিভিন্নস্থানে বিক্রি করে আসছিল। ফলে নদীর দু’পাড়সহ নদী তীরবর্তী ঘর-বাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনার ব্যাপক ক্ষতির পাশাপাশি পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হয়। এসব বিষয় বিবেচনা করে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ওইসব এলাকায় বন বিভাগের লোকজনসহ ভ্রাম্যমাণ আদালতের পরিচালনা করা হয়।

তিনি জানান, এ সময় সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির দায়ে দুইজন ব্যক্তিকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়।

আগামীতেও এসকল অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর হোসেন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!