মিয়ানমার থেকে আনার পথে ধরা ৭৯৮ ভরি স্বর্ণ, মূল্য ৫ কোটি টাকা, আটক ৩ যুবক

মিয়ানমার থেকে আনার পথে ধরা ৭৯৮ ভরি স্বর্ণ, মূল্য ৫ কোটি টাকা, আটক ৩ যুবক

বিশেষ প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক, উখিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের কাছাকাছি উপজেলা উখিয়া-টেকনাফ সীমান্তের কাটাখালী ব্রীজ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫৬টি স্বর্ণের বার জব্দ করেছে পালংখালী চৌকির বিজিবি সদস্যরা। এসব স্বর্ণের ওজন ৭৯৮ ভরি। এ সময় স্বর্ণপাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে তিন যুবককেও আটক করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় টেকনাফের হোয়াইক্ষ্যং ইউনিয়নের কাঁটাখাল ব্রীজ নামক স্থান থেকে এসব স্বর্ণের বার জব্দ ও তিনজনকে আটক করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারস্থ বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ।

আটক ৩ যুবক হলেন কক্সবাজার পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের সৈকতপাড়ার বাসিন্দা মো. ফয়েজ আহমদের ছেলে মো. মনির আলম (২৬), মো. সৈয়দ নুরের ছেলে মো. নুর আহমেদ (৩৭) ও টেকনাফ উপজেলার কাঞ্জরপাড়ার মো. নুরুল আলমের ছেলে মো. মামুনুর রশিদ (২৮)।

কক্সবাজারস্থ ৩৪ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, কয়েকজন চোরাকারবারি অবৈধভাবে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণের চালান মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এনে সিএনজিযোগে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাজচ্ছিলেন। বিজিবি সদস্যরা টেকনাফ উপজেলার ২ নম্বর হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কাঁটাখাল ব্রীজ এলাকায় যানবাহন তল্লাশিকালে সিএনজিটি থামায়।

তিনি জানান, সিএনজি অটোরিক্সাটি তল্লাশি করার সময় সিএনজিতে থাকা তিনযাত্রীর আচরণ সন্দেহজনক মনে হয়। বিজিবির টহলদল তাদের আবারও তল্লাশি করেন। পরে ওই ব্যক্তিদের কোমরে লুঙ্গির ভাঁজে কৌশলে লুকানো অবস্থায় ৫৬টি স্বর্ণের বার পাওয়া যায়। যার ওজন ৭৯৮ ভরি ও আনুমানিক মূল্য পাঁচ কোটি ৩০ লাখ ৬৭ হাজার টাকা।

আটক যুবকদের টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে এবং তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা স্বর্ণালংকার কক্সবাজার ট্রেজারি অফিসে জমা করার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!