হ্নীলা সীমান্তের কেওড়া বনে সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা

নুরুল হক, টেকনাফ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের হ্নীলা সীমান্তে সাড়ে ৩ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এসময় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা ছ্যুরিখাল সীমান্ত থেকে এসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে এই সব ইয়াবা উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোঃ ফয়সল হাসান খান।

তিনি জানান, মঙ্গলবার রাতে হ্নীলা লেদা বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ লেদা ছ্যুরিখাল এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে প্রবেশ হতে পারে। এমন সংবাদে লেদা বিওপি’র একটি বিশেষ টহলদল সেখানে অবস্থান নেয়। এর কিছুক্ষণ পর বিজিবির টহলদল কয়েকজন ব্যক্তিকে নাফ নদী হয়ে একটি নৌকা লেদা ছ্যুরিখাল সংলগ্ন কেওড়া জঙ্গলে প্রবেশ করতে দেখে চ্যালেঞ্জ করে। এসময় দূর থেকে বিজিবির উপস্থিতি লক্ষ্য করে কেওড়া জঙ্গলের আড় ব্যবহার করে অন্ধকারের সুযোগে নৌকাটি বিপরীত দিকে ঘুরিয়ে শুন্যরেখা অতিক্রম করে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলে যায়। পরবর্তীতে টহলদল সেই স্থানের কেওড়া জঙ্গল তল্লাশী করে ইয়াবা পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ৪টি প্লাষ্টিকের বস্তা উদ্ধার করে। এসব বস্তা খুলে ৩ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

বিজিবির দাবি, উদ্ধার হওয়া ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ১০ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

তবে ইয়াবা পাচারকারীদের আটকে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। ইয়াবা পাচারকারীদের সনাক্তে বিজিবির গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

তিনি জানান, উদ্ধার হওয়া ইয়াবাগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হবে। পরবর্তীতে আইনী কার্যক্রম শেষে তা উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!