বিদায় হাসানুজ্জামান, স্বাগতম মুনতাসিরুল ইসলাম

সোহরাব হোসেন, ঝিনাইদহ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

ঝিনাইদহের মানবিক পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামানকে (পিপিএম বার) বর্তমানে আলোচিত জেলা কক্সবাজারে বদলি করা হয়েছে। ঝিনাইদহের নতুন পুলিশ সুপার হিসাবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার মুনতাসিরুল ইসলামকে।

বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

মুনতাসিরুল ইসলাম ডিএমপির লজিস্টিক শাখায় কর্মরত ছিলেন। বিসিএস ২১ ব্যাচ থেকে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। তার প্রথম কর্মস্থল ছিল আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে। পরে তিনি পুলিশের বিশেষ শাখার ইমিগ্রেশন বিভাগ, চট্টগ্রামের সাতকানিয়া সার্কেলের এএসপি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এসপি পদমর্যাদা হিসেবে ২০১৫ সালে প্রথম যোগদান করেন ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ডিসি মিডিয়া (উপ-পুলিশ কমিশনার) হিসেবে। অপরাধ নিয়ন্ত্রণে ডিএমপির সেরা বিভাগ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে লালবাগকে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, ইতোমধ্যে পুলিশের লালবাগ বিভাগের অন্তর্ভুক্ত সব থানা এলাকাতেই পূর্বের তুলনায় হ্রাস পেয়েছে নানাবিধ অপরাধ কর্মকান্ড। এক সময়ের পুরান ঢাকার নবাবপুর, তাঁতিবাজার, সিদ্দিক বাজার, আলুবাজার ছিল একটি ছিনতাইপ্রবনণ এলাকা। আর বর্তমানে এই সব এলাকায় ছিনতাই, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ অন্যান্য অপরাধ নেই বললেই চলে।

ছিনতাই ও চাঁদাবাজি ঠেকাতে এই এলাকাগুলোতে পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ক্রস পেট্রলিং ও ব্লক রেইড পদ্ধতি। যেখানে প্রতিটি পুলিশের টিমে একজন সিনিয়র অফিসার দ্বারা নিয়ন্ত্রণ হয় অভিযানিক টিম।

এদিকে ঝিনাইদহ পুলিশের সুপারিন্ডেন্ট হিসাবে যোগদানের পর পুলিশের পেশাদারিত্ব ও সেবার প্রশ্নে আমুল পরিবর্তন নিয়ে আসেন হাসানুজ্জামান। তিনি জিডি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্সসহ যাবতীয় কাজে পুলিশের ঘুষ খাওয়া বন্ধ করেন। বন্ধ করেছেন মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার। দায়িত্বে অবহেলা ও দুর্নীতি পরায়ন অফিসারদের শাস্তির আওতায় এনে পুলিশকে করেছেন সুশৃঙ্খল। তাই তার এই বদলি ঝিনাইদহে সেবা প্রত্যাশি ও নাগরিক নিরাপত্তা ভাবনার মানুষের মনে চিন্তার ছাপ এনে দিয়েছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!