বিয়ের তিনদিন পরই নববধূর আত্মহত্যা

বিয়ের তিনদিন পরই নববধূর আত্মহত্যা

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বিয়ের তিনদিন পরে তানজিলা আক্তার বেবি (২০) নামে এক নববধূ আত্মহত্যা করেছেন। স্থানীয়দের ধারণা, এক সন্তানের জনকের সঙ্গে বিয়ে হওয়ায় অভিমান থেকে ওই নববধূ আত্মহত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের খাসেরহাট এলাকার নাইয়াপাড়ায় বাবার বাড়ি থেকে নববধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

হাজীমারা পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, পরিবার থেকে বলা হয়েছে ফাঁস দিয়ে ওই নববধূ আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ মাটিতে শোয়ানো অবস্থায় দেখতে পায়। মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিহত তানজিলা খাসেরহাট এলাকার মৎস্যজীবী আবদুস সালামের মেয়ে। প্রায় তিনবছর আগে তাদের পরিবার ঢাকার কামরাঙ্গীরচর থেকে এসে খাসেরহাট এলাকায় বসবাস শুরু করেন। বাবা ছাড়াও তার পরিবারের সৎমাসহ আরও তিন ভাই ও ছয় বোন রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানায় যায়, শনিবার (৮ আগস্ট) খাসেরহাট বাজারের পাশে দীঘিরপাড় এলাকার মৃত রহমত আলীর ছেলে সালাহ উদ্দিনের সঙ্গে তানজিলার বিয়ে হয়। তানজিলা কুমারি হলেও সালাহ উদ্দিন ছিলেন এক সন্তানের জনক।

ধারণা করা হচ্ছে, সংসারে অভাব অনটনের কারণেই সালাহ উদ্দিনের সঙ্গে তানজিলাকে বিয়ে দেয়া হয়। সোমবার বিকেলে তানজিলার সঙ্গে ঝগড়া হলে সালাহ উদ্দিন ঢাকা চলে যায়।

মঙ্গলবার সকালে স্বামীর বাড়ি থেকে রাগ করে তানজিলা বাবার বাড়ি চলে আসে। পরে সৎমায়ের ঘরের দরজা বন্ধ করে আড়ার সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে তানজিলা আত্মহত্যা করেন।

এদিকে তার বাবা সালাম দুদিন আগে মেঘনা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে এখনও বাড়ি ফেরেননি। হয়তো মেয়ের মৃত্যুর খবরও শোনেননি তিনি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!