‘পুলিশের গুলিতে’ মেজর সিনহা’র মৃত্যু তদন্তে গঠিত কমিটিতে পরিবর্তন

টেকনাফে ‘পুলিশের গুলিতে’ সাবেক সেনা কর্মকর্তা খুন!

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে ‘পুলিশের গুলিতে’ অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান নিহত হওয়ার ঘটনায় গঠন করা তদন্ত কমিটি পুনর্গঠন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পরিবর্তন করা হয়েছে কমিটির আহ্বায়কও। তিনজনের কমিটিকে শক্তিশালী করতে আরও এক সদস্য বাড়িয়ে চারজনের কমিটি করা হয়েছে।

রোববার (২ আগস্ট) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে নতুন কমিটির বিষয়টি জানানো হয়।

কমিটির নতুন আহ্বায়ক করা হয়েছে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (চট্টগ্রাম বিভাগ) ও যুগ্ম সচিব মিজানুর রহমানকে।

আগের ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির আহ্বায়ক কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহা. শাজাহান আলিকে কমিটির ‘সদস্য’ হিসেবে রাখা হয়েছে। বাকি দুই সদস্যদের জায়গায় সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও কক্সবাজারের এরিয়া কমান্ডারের একজন প্রতিনিধি ও উপপুলিশ মহাপরিদর্শকের (চট্টগ্রাম রেঞ্জ) প্রতিনিধি থাকবেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

কমিটিকে আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সিনহা মো. রাশেদ খান।

ঘটনার পর পুলিশের দাবি, ওই সেনা কর্মকর্তা তার ব্যক্তিগত গাড়িতে এক সঙ্গীসহ টেকনাফ থেকে কক্সবাজার যাচ্ছিলেন। চেকপোস্টে পুলিশ গাড়িটি থামিয়ে তল্লাশি করতে চাইলে সেনা কর্মকর্তা বাধা দেন। এ নিয়ে তর্কবিতর্কের একপর্যায়ে সেনা কর্মকর্তা তার সঙ্গে থাকা পিস্তল বের করলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়।

পুলিশ বলছে, তারা গাড়িটি তল্লাশি করে ৫০টি ইয়াবা ট্যাবলেট, কিছু গাঁজা ও দুটি বিদেশি মদের বোতল উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় দুটি মামলা করা হয়েছে। পুলিশ নিহত সেনা কর্মকর্তার পিস্তলটি জব্দ করেছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!