ঈদগাঁওতে পল্লীবিদ্যুতের মনগড়া বিল, ক্ষুদ্ধ গ্রাহক

‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ সৌন্দর্য্যমন্ডিত স্লোগান ঠিকই আছে কিন্তু বিদ্যুৎ বিল তৈরিতে মনগড়া করছে বলে অভিযোগ উঠেছে ঈদগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জোনাল অফিসের বিরুদ্ধে। বিল তৈরিতে অনিয়ত গ্রাহকের অভিযোগের বিষয় নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলেও  সমধানে আসেনি। এবার জুলাই মাসের বিলের সাথে যুক্ত করে দিয়েছে ফেব্রুয়ারি মাসের পরিশোধ করা বিল। এই বিল নিয়ে পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহক ক্ষুদ্ধ হয়ে অফিসে যোগাযোগ করলে জবাবে তাঁরা বলেন, ‘এটা সফটওয়্যারের সমস্যা যার কারণে অটো বকেয়া বিল যুক্ত হচ্ছে এখানে আমাদের হাত নেই।’

পল্লীবিদ্যুৎ গ্রাহক আমানউল্লাহ বলেন, বিল তৈরি করার সময় আরো সর্তকমুলক ভাবে কাজ করতে হবে। সর্তক না হলে গ্রাহকের সমস্যা দিন দিন বাড়তে থাকবে।

তিনি মনে করেন. গ্রাহক বার বার বিল সংশোধন করার জন্য অফিসে আসা এটা অনেক বিরক্তিকর।

ঈদগাঁও জোনাল অফিসের এজিএম শহীদুল আলমের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি – এই বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারছি না বলে মন্তব্য করেন।

তিনি জানান, বিদ্যুৎ বিলের ক্ষেত্রে সার্ভার সমস্যা এই সমস্যা হয়। তবে এখানে প্রশ্ন বিল তৈরির সাথে সার্ভারে কি সম্পর্ক? এই প্রশ্নে তিনি কোন উত্তর দেননি। বিল পরিশোধ না করলে পরের মাসের বিলে যোগ হবে এখন কথা হচ্ছে ফেব্রুয়ারি মাসের বিল বকেয়া থাকলে এত দিন কেন যোগ করে দেয়নি, জুলাই মাসে কেন যোগ হবে এমন প্রশ্ন করা হলে কোন উত্তর দেননি তিনি।

বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল দেশ। ঘরে বসে বিল পরিশোধ করা যায়। বিকাশে বিল পরিশোধ করলে পরের মাসে আবার বকেয়া মাসের বিল বলে যোগ করে দেয়ার এমন হাজারো বিলের সমস্যা রয়েছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!