চকরিয়ায় তরুণী গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

চকরিয়ায় তরুণী গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

ছোটন কান্তি নাথ, চকরিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের স্টেশন পাড়াস্থ পাহাড়ি এলাকা থেকে উর্মি আক্তার (২১) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ছোরাও জব্দ করা হয়।

আজ বুধবার (২২ জুলাই) সকাল দশটার দিকে উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের স্টেশন পাহাড় এলাকার ভাড়া বাসার কাছ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এরপর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য ওই নারীর লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্বামী পরিত্যক্তা উর্মি হত্যার অন্যতম সন্দেহভাজন প্রথম স্বামী মো. মামুন ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন।

উর্মি আক্তার হারবাং ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের শান্তিনগর এলাকার জাকির হোসেনের মেয়ে।

পুলিশ জানায়, উর্মি আক্তারের সঙ্গে বেশ কয়েকবছর আগে বিয়ে হয় চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া এলাকার মোহাম্মদ মামুনের সঙ্গে। তাদের সংসার চলাকালীন এক বছরের মধ্যে উর্মিকে ছেড়ে লাপাত্তা হয়ে যান স্বামী মামুন। এরপর উর্মি সম্পর্কে জড়ান কক্সবাজার সদর এলাকার রুবেল নামের এক যুবকের সঙ্গে। তাদের মধ্যে অনানুষ্ঠানিক বিয়ে হলেও সেই সম্পর্কও বেশিদিন টিকেনি। এই অবস্থায় ফের সম্পর্ক উন্নয়ন হয় প্রথম স্বামী মামুনের সঙ্গে। কয়েকমাস আগে তারা হারবাং স্টেশন পাহাড় এলাকায় ভাড়া বাসায় উঠেন। তবে প্রতিনিয়ত দুইজনের মধ্যে সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়। এর জের ধরে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে শ্বাসরোধ ও ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয় উর্মিকে।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে বলেন, ‘স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারীর লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। এ সময় শ্বাসরোধ ও গলায় ছুরির জখমের চিহ্ন পাওয়া গেছে।’

তিনি জানান, ঘটনার পর থেকে প্রথম স্বামী মামুন পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!