আ.লীগ নেতা নজরুল ইসলাম চৌধুরী ১৬ দিন পর করোনামুক্ত

আ.লীগ নেতা নজরুল ইসলাম চৌধুরী ১৬ দিন পর করোনামুক্ত

আনছার হোসেন
সম্পাদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

দীর্ঘ ১৬ দিন রোগে আক্রান্ত থাকার পর অবশেষে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম চৌধুরী ‘করোনামুক্ত’ হয়েছেন। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) তাঁর ফলোআপ রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তিনি বর্তমানে কক্সবাজার শহরের বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্টান ইউনিয়ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তবে তাঁর করোনাভাইরাসের ফলোআপ টেষ্ট নেগেটিভ এলেও অক্সিজেন লেভেল ‘স্থির’ হচ্ছে না। তাঁর অক্সিজেন সিচ্যুরেশন ৯০ থেকে ৯২’র মধ্যে উঠানামা করছে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ সুত্র জানিয়েছেন, কক্সবাজারের বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম চৌধুরীর ফলোআপ রিপোর্ট মঙ্গলবার নেগেটিভ এসেছে। তিনি সোমবার (৬ জুলাই) ফলোআপ টেষ্টের নমুনা জমা দিয়েছিলেন।

আ.লীগ নেতা নজরুল ইসলাম চৌধুরীও এখন করোনা ‘পজিটিভ’

প্রসঙ্গত, নজরুল ইসলাম চৌধুরীকে আনুষ্টানিক ভাবে ‘করোনা রোগী’ ঘোষণা করা হয় ২২ জুন। ওইদিন কক্সবাজার সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁকে ‘করোনা পজিটিভ’ রোগী বলে ঘোষণা দিলেও তখনও তাদের হাতে ছিল না ল্যাবের রিপোর্ট। সন্ধ্যার পর কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাব থেকে করোনা টেষ্টের রিপোর্ট হওয়ার পর সেখানে নজরুল ইসলাম চৌধুরীর রিপোর্টও ‘পজিটিভ’ আসে।

ইতোপূর্বেই তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তার শারিরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ২২ জুন সকালে সদর হাসপাতালের ‘এইচডিইউ’তে (হাই ডিফেন্ডেন্সি ইউনিট) নিয়ে আসা হয়। উদ্বোধন হওয়ার পর তিনিই ‘এইচডিইউ’র প্রথম রোগী।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ সুত্র মতে, নজরুল ইসলাম চৌধূরীর করোনার পরীক্ষার প্রথম নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল ২২ জুন। পরদিন তাঁর রিপোর্টটি ‘পজিটিভ’ আসে।

তিনি কয়েকদিন ধরে করোনার উপসর্গে ভোগছেন।

২২ জুন প্রথমে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের একটি কেবিনে ভর্তি ছিলেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে নতুন নির্মিত হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) স্থানান্তর করা হয়।

নজরুল ইসলাম চৌধুরী সদর হাসপাতালের নতুন নির্মিত এইচডিইউ’র ১ নাম্বার বেডে ভর্তি ছিলেন। পরে তাঁকে কক্সবাজার শহরের বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্টান ইউনিয়ন হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। মূলতঃ অক্সিজেন সিচ্যুরেশন বাড়ানোর জন্যই তাঁকে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল থেকে বেসরকারি ওই হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!