২১ দিন পর আকাশ পথে উড়ে আসলেন ‘করোনামুক্ত’ মেয়র মুজিব ও স্ত্রী

২১ দিন পর আকাশ পথে উড়ে আসলেন ‘করোনামুক্ত মেয়র মুজিব ও স্ত্রী

মেয়র হোন আর রাজনীতিকই হোন, তিনিও একজন বাবা! করোনার চিকিৎসা শেষে ২১ দিন পর  ঢাকা থেকে কক্সবাজার ফিরেছেন। কক্সবাজার বিমান বন্দরে ২১ দিন পর দেখা হওয়া বাবা মেয়র মুজিবুর রহমানের সাথে ছোট্ট ছেলের আবেগঘন মুহুর্ত।  হেলিকপ্টার থেকে নেমে বাবা মুজিব হাত বাড়িয়ে আছেন ছেলের দিকে, আর ছেলে ফুল হাতে দৌঁড়াচ্ছেন বাবার দিকে। এ এক অসাধারণ আবেগায়িত মুহুর্ত। এই দৃশ্য যারা দেখেছেন তারাই কেবল বুঝতে এই ভালোবাসার মমত্ব কতটুকু। এতো কেবল বাবা আর সন্তানের মাঝেই হয়! (ক্যাপশন: আনছার হোসেন, সম্পাদক, কক্সবাজার ভিশন ডটকম)।

মহিউদ্দিন মাহী, প্রধান প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন ঢাকায় চিকিৎসাধীন থাকার পর প্রাণের শহর কক্সবাজারে ফিরেছেন পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান ও তাঁর স্ত্রী ফারহানা রহমান।

শুক্রবার (১৯ জুন) বেলা ১টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দেয়া বিশেষ হেলিকপ্টারে তিনি কক্সবাজার বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। এর আগে তিনি ঢাকা বসুন্ধরা রিভারভিউ থেকে বেলা ১১টায় ওই হেলিকপ্টারে উঠেন। আকাশে মেঘমালার কারণে দীর্ঘ ২ ঘন্টা ধরে আকাশেই ঘুরতে হয়েছে হেলিকপ্টারে।

বিষয়টি কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন পৌর মেয়রের ব্যক্তিগত মিডিয়া সহকারি ও এসএ টিভি প্রতিনিধি আহসান সুমন।

তবে মেয়র মুজিব কক্সবাজারে ফিরলেও এখনই পৌরসভায় যোগ দিচ্ছেন না। আপাতত কয়েকদিন বাড়িতে রেষ্টে থাকবেন। ওই সময়ে জরুরী প্রয়োজনে বিশেষ ফাইলে বাড়িতে থেকেই সই করবেন।

২১ দিন পর আকাশ পথে উড়ে আসলেন ‘করোনামুক্ত মেয়র মুজিব ও স্ত্রী

কক্সবাজারে করোনা টেষ্টে পজিটিভ আসার ১০ দিনের মাথায় গত মঙ্গলবার (৯ জুন) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে করোনা পরীক্ষায় মেয়র মুজিুবর রহমান, তাঁর স্ত্রী ফারহানা রহমান ও ব্যক্তিগত সহকারী শাহেদুল আলম রানাসহ তিনজনেরই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। পরে তাদের হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

আহসান সুমন কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে জানান, মেয়র ও তাঁর স্ত্রী করোনা নেগেটিভ হওয়ার পর ঢাকার গুলশানে এক আত্মীয়ের বাড়িতে ছিলেন। চিকিৎসা ও আত্মীয়ের বাড়িতে থাকা মিলিয়ে মেয়র মুজিব দীর্ঘ ২১ দিন ঢাকায় কাটিয়ে আজ কক্সবাজারে ফিরেছেন।

প্রসঙ্গত, মেয়র মুজিবুর রহমানের তিন কন্যাও কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে করোনা নমুনা জমা দিয়েছিল। এদের মধ্যে বড় মেয়ে আমরিনের ‘করোনা পজিটিভ’ আসে। অন্য দুইজনের রিপোর্ট আসে ‘নেগেটিভ’। তারা ঝিলংজা এলাকায় নানার বাড়িতে ছিল।

অপরদিকে মেয়র মুজিবুর রহমানের অপর ব্যক্তিগত সহকারি এ বি ছিদ্দিক খোকন ও মেয়রের ঘনিষ্টজন হিসেবে পরিচিত মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের মেম্বারও করোনা ‘পজিটিভ’ হয়েছেন। তাঁরাও কক্সবাজারের কাছের উপজেলা রামুর ডেডিকেটেড আইসোলেশন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

২১ দিন পর আকাশ পথে উড়ে আসলেন ‘করোনামুক্ত মেয়র মুজিব ও স্ত্রী

উল্লেখ্য, গত ৩০ মে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবের করোনা টেষ্টে মেয়র মুজিবুর রহমান, তাঁর সহধর্মিনী ফারহানা রহমান এবং তাঁদের পরিবারের আরও তিন সদস্যের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ওইদিন দিনগত মধ্যরাতে বিশেষ এম্বুলেন্সে মেয়র মুজিবুর রহমান, তার স্ত্রী এবং ব্যক্তিগত সহকারি রানা ঢাকা মেডিকেলের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। পরদিন ৩১ মে সকালে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হন।

ওই সময় মেয়র মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্টজনরা জানিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগ্রহে তাঁকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।