প্রশাসনের চাপে আগেই নাগু কোম্পানির জানাযা, তারপরও প্রচুর মানুষের অংশগ্রহণ

প্রশাসনের চাপে আগেই নাগু কোম্পানির জানাযা, তারপরও প্রচুর মানুষের অংশগ্রহণ

আনছার হোসেন
সম্পাদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

বিকেল ৩টার ঘোষণা দিয়েও প্রশাসনের চাপের মুখে জোহরের নামাজের পরপরই জানাযা শেষে দাফন করতে হয়েছে কক্সবাজার শহরের অতিপরিচিত ব্যবসায়ী ও সুগন্ধা গেষ্ট হাউসের মালিক আবু সোলতান ওরফে নাগু কোম্পানীর। তিনি আজ বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সকালে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত তাকে জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালে নেয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে তিনি মারা যান।

জোহরের নামাজের পর নাগু কোম্পানির নিজের প্রতিষ্টিত খুরুস্কুল ইউনিয়নের ফকির পাড়া জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে তার নামাজে জানাযা হয়। ওই মসজিদের ইমাম মাওলানা জালাল উদ্দিন জানাযায় ইমামতি করেন। পরে তাকে নিজের গড়া পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জানাযার পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন তার নিজের বড় ভাই হাজী আবু তাহের, খুরুস্কুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা আবদুল মাবুদ, নিজের ছোট ভাই ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আমানুল হক আমান ও নিজের ছেলে আবদুস শুক্কুর।

প্রশাসনের চাপে আগেই নাগু কোম্পানির জানাযা, তারপরও প্রচুর মানুষের অংশগ্রহণ

সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে, মৃত্যুকালে নাগু কোম্পানির ডায়াবেটিস ও নিউমোনিয়ার লক্ষণ থাকায় তার করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং হাসপাতাল থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল, করোনা বিধি মেনেই তাকে দাফন করতে হবে।

কিন্তু খুরুস্কুল ইউনিয়নের আবু সুলতান ওরফে নাগু কোম্পানি অত্যন্ত জনপ্রিয় হওয়ায় জানাযায় মানুষের ঢল নামার আশংকা করে প্রশাসন। প্রশাসনের লোকজন অল্প পরিসরে জানাযা শেষ করার অনুরোধ জানায়। সেই অনুযায়ী বিকেল ৩টায় ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে জানাযার ঘোষণা দিয়েও জোহরের নামাজের পরপরই ফকির পাড়া জামে মসজিদে জানাযার নামাজ শেষ করতে বাধ্য হয় তার পরিবার।

প্রশাসনের চাপে আগেই নাগু কোম্পানির জানাযা, তারপরও প্রচুর মানুষের অংশগ্রহণ

নাগু কোম্পানির বড় মেয়ের জামাতা মোহাম্মদ হানিফ জানান, প্রশাসনের অনুরোধে জানাযা আগেই করে ফেলতে হয়েছে। তারপরও জানাযায় প্রচুর মানুষ অংশ নেন।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ‘সুগন্ধা পয়েন্ট’ নামের পরিচিতি পাওয়া স্থানটি মূলতঃ নাগু কোম্পানিরই মালিকানাধীন আবাসিক হোটেল সুগন্ধা গেষ্ট হাউসের নামেই হয়েছে। এছাড়াও তিনি ছিলেন ট্রলার ব্যবসায়ি ও দানশীল ব্যক্তি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!