করোনা উপসর্গে মারা যাওয়া নাগু কোম্পানীর জানাযায় এক মসজিদের মুসল্লি ছাড়া কেউ নয়

নাগু কোম্পানি আর নেই

মহিউদ্দিন মাহী, প্রধান প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হওয়া কক্সবাজার শহরের আলোচিত ব্যবসায়ী, কলাতলী এলাকার সুপরিচিত সুগন্ধা গেষ্ট হাউসের মালিক আবু সুলতান ওরফে নাগু কোম্পানী জানাযায় অংশ নিতে পারবেন একটি মসজিদের মুসল্লি। যাতে ওই জানাযায় বেশি মানুষ অংশ নিতে না পারে সে ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন। কক্সবাজার সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহমুদুল্লাহ মারুফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, জানাযা প্রাঙ্গনের মাঠের পাশ্ববর্তী মসজিদে যে মুসল্লিরা নামাজ পড়বেন তারাই জানাযাতে অংশ নিতে পারবেন। খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে বিকাল ৩টায় তার নামাজে জানাযা হবার কথা রয়েছে।

তিনি জানান, ইতিমেধ্য কক্সবাজার সদর মডেল থানা থেকে দুইটি পুলিশের টিম অবস্থান করছেন। যাতে কোনভাবে ওই এলাকাতে বাইর থেকে মানুষ যেতে না পারে। বর্তমান করোনাভাইরাসের কারণে সামাজিক দুরত্ব মেনেই জানাযা হবে।

আবু সুলতান ওরফে নাগু কোম্পানী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই আজ ‍বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. শাহীন আবদুর রহমান জানিয়েছিলেন, আজ বৃহস্পতিবার সকালে নাগু কোম্পানিকে অর্ধমৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। হাসপাতালে আনার কিছুক্ষণ পর তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

ডা. শাহীন আবদুর রহমান জানান, আবু সুলতান ওরফে নাগু কোম্পানির ডায়াবেটিস ও নিউমোনিয়াজনিত সমস্যা ছিল। তার করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তাকে করোনা বিধি মেনেই দাফন করতে বলে দেয়া হয়েছে।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার ছেলে ও তিন মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

এদিকে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজহান কবির জানান, নাগু কোম্পানী খুব পরিচিত ব্যক্তি হওয়ায় দুর দূরান্ত থেকে জানাযায় বেশি মানুষ অংশ নিতে পারেন। সে কথা মাথায় রেখে পুলিশের দুইটি টিম অবস্থান করছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!