রোহিঙ্গা ডাকাত দলের উপর টর্চের আলো ফেলায় যুবককে অপহরণ

বিশেষ প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের পাহাড় থেকে নেমে আসা রোহিঙ্গা স্বশস্ত্র ডাকাত দলের উপর টর্চের আলো ফেলায় আবারও একজন বাংলাদেশী যুবককে অপহরণ করেছে। পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন দিনভর চেষ্টা করেও ওই যুবকের সন্ধান পায়নি। এ ঘটনায় অপহৃতের পরিবারে কান্নার রোল পড়েছে।

রোববার (২৪ মে) মধ্যরাত আড়াইটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সুত্রগুলো জানিয়েছেন, ওই সময় উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কাটাখালী পাহাড়ি এলাকা থেকে একদল স্বশস্ত্র রোহিঙ্গা ডাকাত নেমে আসে। ডাকাত দলটির সাথে ইতোপূর্বে মিনাবাজার এলাকা থেকে অপহৃত যুবক ইদ্রিসও ছিলেন।

সুত্রগুলোর দাবি, পাহাড় থেকে নেমে ডাকাত দল হৈ চৈ শুরু করলে ওই এলাকার একটি মৎস্যঘেরে থাকা কাটাখালী পূর্ব পাড়ার মিয়া হোছনের ছেলে আব্দুর রশিদ ওরফে সাদেক টর্চ লাইটের আলো ফেলে তারা কারা জানতে চায়? তখন ডাকাত দল ক্ষুদ্ধ হয়ে ঘেরে থাকা লোকজনের উপর চড়াও হয়। এই ফাঁকে তাদের সাথে থাকা ইদ্রিস পালিয়ে যায়। এতে ডাকাত দল ক্ষুদ্ধ হয়ে আব্দুর রশিদকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

বিষয়টি স্থানীয় মেম্বার, চেয়ারম্যান ও পুলিশকে জানানো হয়।

এদিকে ডাকাতের কবল থেকে পালিয়ে আসা মিনাবাজার এলাকার মৃত কাশেমের ছেলে ইদ্রিস তার সাথে অপহৃত আরেক যুবক শাহেদকে শবেবরাতের দিন খুন করে পাহাড়ে পুঁতে ফেলার চাঞ্চল্যকর তথ্য জানান।

মোহাম্মদ ইদ্রিসের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ও এলাকাবাসী শাহেদের মৃতদেহ এবং আব্দুর রশিদকে উদ্ধারে পাহাড়ে অভিযানে যান।

সুত্র মতে, দিনভর অভিযানের পর শাহেদের অর্ধগলিত মৃতদেহ উদ্ধার করা হলেও নতুন করে অপহৃত রশিদের খোঁজ মিলেনি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুর আহমদ আনোয়ারী সংবাদমাধ্যমকে এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন

এই ঘটনার পর থেকে অপহৃত রশিদের বাড়িতে ঈদের আনন্দ মাটি হয়ে গেছে। পরিবারের সদস্যরা রশিদের শোকে কাতর হয়ে পড়েছেন।

সুত্র মতে, কাটাখালীর পুর্বে উলুবনিয়া সড়কের পশ্চিম পাশের মাছের ঘের থেকে রাত আনুমানিক ২টা ৩০ মিনিটের দিকে কাটাখালী পুর্বপাড়ার মিয়া হোসেনের ছেলে আব্দুর রশিদ ওরফে সাদেককে অপহরণ করা হয়।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!