আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা, করোনাতেই নাইক্ষ্যংছড়িতে জমি দখল!

আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা, করোনাতেই নাইক্ষ্যংছড়িতে জমি দখল!

মো. আবুল বাশার নয়ন, বান্দরবান
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

দেশে বিরাজমান পরিস্থিতির সুযোগে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে আদালতের ১৪৪ ধারা উপেক্ষা করে সন্ত্রাসি কর্মকান্ড ও জমি দখলের অভিযোগ মিলেছে।

ভূমি দখলের তৎপরতার কারণে নারী-পুরুষসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

২৭০নং নাইক্ষ্যংছড়ি মৌজার ফুট্টাঝিরি গ্রামের বাসিন্দা নুর হোছাইন জানান, ২০১৪ সনে তিনি ৬৪নং হোল্ডিং থেকে ৪ একর ৩য় শ্রেণীর জমি কেনেন। পরে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ১১৫/১৪ মূলে জমি বিক্রি অঙ্গিকারনামা দলিল সৃজন করেন। ওই জমি খরিদের পর থেকে স্থানীয় একটি চক্র তার কেনা জমি জবর দখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছে।

এই জমি বিরোধের বিষয়ে ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর বান্দরবান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ১৪৪ ধারা জারি করেন।

কিন্তু দেশে চলমান পরিস্থিতিতে প্রশাসনের ব্যস্ততা ও আদালত বন্ধ থাকার সুযোগে ভূমি জবর দখলে জড়িত চক্রটি আদালতের আদেশ অমান্য করে গত ২২ মে পরিকল্পিতভাবে জমিতে স্থাপনা তৈরি করে ফেলেন।

এই বিষয়ে নুর হোছাইন সাংবাদিকদের জানান, আদালত বন্ধ থাকার সুযোগে ভূমিদস্যুরা সন্ত্রাসি কর্মকান্ডের মাধ্যমে স্থাপনা তৈরি করেছে। এই ঘটনায় আইনজীবীর মাধ্যমে পরামর্শ নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ভুমিদস্যুচক্র আলী হোসেন, আব্দুল গফুর, নবী হোসেন, রমজান আলী, মতিউর রহমান, রেহেনা আক্তার, মো. শাহিন, হেলাল উদ্দিন ও আক্তারের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে তিনি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!