একদিনে দেড়লাখ টাকা জরিমানা, দোকান সিলগালা

চকরিয়ায় প্রশাসন-জনতা ‘লুকোচুরি খেলা’, দোকানের বাইরে তালা ভেতর বিকিকিনি!

একদিনে দেড়লাখ টাকা জরিমানা, দোকান সিলগালা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

যতই দিন যাচ্ছে ততই আশংকাজনক হারে বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। অপরদিকে ক্রেতা-বিক্রেতারা প্রশাসনের সাথে খেলছে ‘লুকোচুরি খেলা’। এই সময়েও চকরিয়ায় বন্ধ দোকানের ভেতরে তালা ও বাইরে পাহারা বসিয়ে বিকিকিনি করছেন অতিলোভী ব্যবসায়ীরা।

খবর পেয়ে বুধবার (২০ মে) ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে প্রায় দেড়লাখ টাকা জরিমানা আদায় ছাড়াও কয়েকটি দোকান সিলগালা করে দিয়েছেন।

এই ‘লুকোচুরি খেলা’ বন্ধ করতে এবং করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বিভিন্ন ভাগে ভাগ হয়ে প্রতিনিয়ত অভিযান চালাচ্ছে। বন্ধ করে দিচ্ছে অতিলোভী ব্যবসায়ীদের ব্যবসা প্রতিষ্টান। তারপরও ঠেকানো যাচ্ছে না। নারী-পুরুষরা ভোর হলেই দলে দলে বের হচ্ছেন ঈদের কেনাকাটা করতে।

অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, যতই দিন গড়াচ্ছে চকরিয়ায় ততো করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন নিয়মনীতি জারি করা হয়েছে। কিন্তু লক্ষ্য করা গেছে কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী সরকারের এই আদেশ অমান্য করে গ্রামে-গঞ্জে দোকান খুলে ব্যবসা করছেন। কেউ কেউ অযথা বাইরে ঘুরাফেরা করছেন। এতে মানা হচ্ছে না কোন সামাজিক দূরত্ব।

তিনি বলেন, তাই ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে উপজেলার বদরখালী বাজার, হারবাং বাজার, বরইতলী বাজার, কাকারার বিভিন্ন দোকানে অভিযান চালিয়েছি। এসময় ১৯ মামলার বিপরীতে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেছি এবং বেশ কয়েকটি দোকান সিলগালা করে দিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, অভিযান চালাতে গিয়ে দেখা গেছে পৌরশহরের কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী গ্রামে গিয়ে দোকান খুলে বসেছে। তারা প্রতিদিন ভোর অর্থাৎ সেহেরি খাওয়ার পর থেকে দোকান খুলে ব্যবসায় চালাচ্ছে। ওইসব দোকানদাররা কাস্টমার ঢোকার পর ভিতর থেকে তালা লাগিয়ে দিয়ে বাইরে পাহারা বসায়। এ খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়।

এসময় চকরিয়া থানার একদল পুলিশ, আনসার সদস্য ও উপজেলা টেকনিশিয়ান এরশাদুল হক সাথে ছিলেন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!