চকরিয়ায় চেকপোষ্টে পুলিশকে মেরে পালাতে গিয়ে উল্টে গেল অটো, শিশু যাত্রী নিহত

চকরিয়ার সংবাদকর্মী নেজামের বাবা সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত

ছোটন কান্তি নাথ, চকরিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

মহাসড়কে নিষিদ্ধ তিন চাকার সিএনজিচালিত একটি অটোরিক্সা কক্সবাজারের চকরিয়ায় লকডাউন অমান্য করে যাত্রী বহন করছিল। চট্টগ্রামমুখী অটোরিক্সাটি আজ রোববার (১৭ মে) বেলা দুইটার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ার বানিয়ারছড়াস্থ চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের চেকপোষ্টের সামনে গেলে সিগন্যাল দেয় পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সেই সিগন্যাল অমান্য করে হাইওয়ে পুলিশের শরীফুল ইসলাম নামের এক কনষ্টেবলকে মেরে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার সময় কিছুদূর গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারায় অটোটি। এতে অটোরিক্সাটি উল্টে গেলে গুরুতর আহত হয় এক শিশু যাত্রী। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সিএনজি অটোরিক্সা উল্টে মারা যাওয়া শিশুর নাম মো. নিশান (১৪)। সে বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নের চার নম্বর ওয়ার্ডের মহেশখালী পাড়ার আবুল কাশেমের ছেলে এবং স্থানীয় একটি হেফজখানার শিক্ষার্থী।

অটোর ধাক্কায় গুরুতর আহত হাইওয়ে পুলিশের কনষ্টেবল শরীফুল ইসলামকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে একযোগে হাইওয়ে পুলিশের ওপর আক্রমণের চেষ্টা চালালে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে শুরু করে। তাৎক্ষণিক চকরিয়া থানার বিপুলসংখ্যক পুলিশ অকুস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলিও ছুঁড়ে পুলিশ। এরপর সেনাবাহিনীরও একটি টিম ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি একেবারে শান্ত হয়ে আসে।

মহাড়কের বানিয়ারছড়াস্থ চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ ও ইন্সপেক্টর মো. আনিসুর রহমান বলেন, ‘লকডাউন অমান্য করে মহাসড়কে নিষিদ্ধ অটোরিক্সা যাত্রী পরিবহণ করার সময় সিগন্যাল দিলে হাইওয়ে পুলিশের কনষ্টেবল শরীফুল ইসলামকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে অটোটি। কিন্তু কিছুদূর গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারালে সড়কের ওপর উল্টে গিয়ে এক শিশু যাত্রী আহত হয়। শিশু এবং পুলিশ কনষ্টেবলকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা এবং গুরুতর আহত কনষ্টেবলকে
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশনা দেন।’

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘স্থানীয় কিছু লোক মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে হাইওয়ে পুলিশের ওপর আক্রমণের চেষ্টা হিসেবে ইট-পাটকেল ছোঁড়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক থানার বিপুলসংখ্যক পুলিশ অকুস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।’

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!