চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদীর দুই শিশু সন্তানও করোনাক্রান্ত, শনিবার শনাক্ত ৮

কক্সবাজার শহরে একজন কুরআনে হাফেজের ‘করোনা’, আতঙ্কিত পুরো এলাকাবাসি

আনছার হোসেন, সম্পাদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের বৃহত্তর উপজেলা চকরিয়ায় শনিবার যে ৮ জন নতুন করোনা ‘পজিটিভ’ রোগী শনাক্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে দুইজন হলো চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদীর দুই শিশু সন্তান। এরা হলো ফারাজ করিম (৯) ও অনন্যা করিম (৮)।

জনপ্রতিনিধি বাবা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ৮ দিনের মাথায় তার দুই সন্তানও আক্রান্ত হলো। ফজলুল করিম সাঈদী গত ৯ মে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমানে ‘হোম আইসোলেশনে’ নিজের বাড়িতেই রয়েছেন। তিনি চকরিয়া পৌরসভার ২ নাম্বার ওয়ার্ডে বাস করেন।

এছাড়াও অন্য ৬ জনের মধ্যে কাকারা ইউনিয়নের তিনজন, দিগর পানখালীর একজন ও চকরিয়া পৌর এলাকার দুইজন রয়েছেন। এদের মধ্যে কাকারা ইউনিয়নের দুই নাম্বার ওয়ার্ডের ২০ বছর বয়সী এক মহিলা, একই এলাকার আরেকজন মহিলা ও ৭০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধও আছেন। পৌরসভার ২ নাম্বার ওয়ার্ডে আছেন ৫৮ বছর বয়সী বৃদ্ধ ও ৯ নাম্বার ওয়ার্ডে ৪২ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। আছেন দিগরপানখালী এলাকার ২২ বছর বয়সী এক যুবকও।

এ নিয়ে চকরিয়া উৃপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৬১ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে কক্সবাজার জেলার প্রথম করোনা রোগী মুসলিমা খাতুন (৭০) ছিলেন চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী এলাকার বাসিন্দা। তিনি বর্তমানে সুস্থ হয়ে বাড়িতেই আছেন।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর থেকে কক্সবাজার জেলায় ১৭১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে সর্বাধিক সংখ্যক ৬১ জন রোগী রয়েছে চকরিয়া উপজেলায়।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!