রামুতে উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া নারীর দাফনও হলো করোনা রোগির মতো

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে রামু হাসপাতালে মারা যাওয়া নারী গুলবাহার বেগম (৬০) জানাযা শেষে দাফন করা হয়েছে। তবে তাকে স্বাভাবিক রোগির মতো দাফন করা হয়নি। করোনাভাইস শনাক্ত না হলেও তাকে করোনা আক্রান্ত রোগি মারা যাবার পর যেভাবে দাফন করা হয় সেভাবেই দাফন করা হয়েছে। রামু উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে তার নমুনাও নেয়া হয়েছে। রামু উপজেলার ফতেখারকুল ইউনিয়নের লামার পাড়া গ্রামের গুলবাহার বেগম (৬০) বৃহস্পতিবার (১৪ মে) সকালে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মারা যান।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা সকালে বাড়িটি লকডাউন করেন। এছাড়া স্বাস্থ্য বিভাগের একটি দল গুলবাহার বেগমের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করেন।

এদিকে বিকালে ধর্মীয় বিধান ও সরকারী স্বাস্থ্য বিধি মতে করোনা রোগে মৃত ব্যক্তিদের দাফন -কাফনের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশন গঠিত কমিটির মাধ্যমে গুলবাহার বেগমের দাফন সম্পন্ন করা হয়।

এসময় দাফন কমিটির প্রধান হিসেবে সার্বিক নির্দেশনা প্রদান করেন-রামু উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) সরওয়ার উদ্দিন।

দাফন কাজ তত্ত্বাবধান করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন রামু উপজেলার সিনিয়র সুপারভাইজার মো. সাইফুদ্দিন খালেদ ও মডেল কেয়ার টেকার মো. আবু বকর ছিদ্দিক।

জানাজায় ইমামতি করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কেন্দ্র শিক্ষক মাওলানা নুরুল ইসলাম। এসময় রামু থানার এএসআই রাজীব বড়ুয়া ও স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!