ধানক্ষেতে লাশ দেখতে গিয়ে ছেলের মরদেহ পেলেন বাবা

ইফতার করে বের হয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে!

দিনাজপুর সদরে নিখোঁজের তিনদিনের মাথায় আরমান আলী (২২) নামে এক রাজমিস্ত্রির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে বাড়ি থেকে ১ কিলোমিটার দূরে দানিহারী ধানখেতের ভেতর লাশটি পাওয়া যায়।

হত্যাকাণ্ডের শিকার আরমান আলী সদর উপজেলার ৮নং শংকরপুর ইউনিয়নের নারায়ণপুর মাঝপাড়া গ্রামের দুলাল হোসেন দুলুর ছেলে। তিনি পেশায় রাজমিস্ত্রি ছিলেন।

নিহতের বাবা দুলাল হোসেন দুল জানান, সোমবার বিকেল থেকে আরমান আলী নিখোঁজ ছিল। আত্মীয়-স্বজন থেকে শুরু করে সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ করেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। বুধবার সকালে লোকমুখে শুনতে পান পার্শ্ববর্তী ১০নং কমলপুর ইউনিয়নের দানিহারি এলাকায় ধানখেতে একটি লাশ পড়ে আছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পান ছেলের লাশ পড়ে আছে। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

দিনাজপুর কোতয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বজলুর রশিদ জানান, ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় এলোপাথাড়ি কুপিয়ে আরমান আলীকে হত্যা করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে সোমবার রাতেই তাকে হত্যা করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে হত্যার কারণ জানা যায়নি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!