কক্সবাজারে একদিনে ৯, লোহাগড়া-সাতকানিয়ায় ৫ করোনা ‘পজিটিভ’

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে ‘করোনা’ ল্যাব চালুর প্রস্তুতি চলছে, জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে ২১৪ বিদেশফেরত

আনছার হোসেন, সম্পাদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজার জেলায় আরও ৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এছাড়াও চট্টগ্রামের লোহাগড়া ও সাতকানিয়ায় শনাক্ত হয়েছে ৫ জন। মঙ্গলবার (১২ মে) কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ১৭৬ জন সন্দেহভাজন রোগীর টেষ্ট করে এই রিপোর্ট মিলেছে।

এদের মধ্যে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলায় ৪ জন, পেকুয়া উপজেলায় ৪ জন ও টেকনাফে একজন রয়েছেন। অন্যদিকে চট্টগ্রামের লোহাগড়া উপজেলায় ৪ জন ও সাতকানিয়া উপজেলায় একজন রোগী শনাক্ত হয়।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ ও রক্তরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অনুপম বড়ুয়া কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ নিয়ে ৪২ দিনে কক্সবাজার জেলায় ১১০ জন ও বান্দরবান জেলায় ৯ জন এবং চট্টগ্রামের সাতকানিয়া ও লোহাগড়া উপজেলায় ৭ জন করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

ইতোপূর্বে ঢাকায় আইইডিসিআর ল্যাবে শনাক্ত হওয়া কক্সবাজারের প্রথম করোনা রোগী মুসলিমা খাতুনসহ কক্সবাজার জেলায় এখন করোনা রোগীর সংখ্যা ১১১ জনে দাঁড়িয়েছে।

কক্সবাজার ল্যাবে মঙ্গলবার পর্যন্ত দুই হাজার ৯৯১ জন সন্দেহভাজন রোগীর ‘কোভিড ১৯’ পরীক্ষা করা হয়েছে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ক্লিনিক্যাল ট্রপিক্যাল মেডিসিন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ও সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মোহাম্মদ শাহজাহান নাজির কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি করোনাভাইরাস নিয়ে একটি গবেষণা কাজেও জড়িত রয়েছেন।

ডা. শাহজাহান নাজিরের মতে, কক্সবাজার জেলায় এখন পর্যন্ত শনাক্ত হওয়া করোনা রোগীর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলায় ২৩ জন, রামু উপজেলায় ৪ জন, চকরিয়া উপজেলায় ৩৫ জন (প্রথম রোগীসহ), মহেশখালী উপজেলায় ১২ জন, উখিয়া উপজেলায় ৯ জন, টেকনাফ উপজেলায় ৯ জন, পেকুয়া উপজেলায় ১৮ জন ও কুতুবদিয়া উপজেলায় একজন রয়েছেন।

তবে কুতুবদিয়া উপজেলার নামে একজন রোগী থাকলেও তিনি নমুনা পরীক্ষা করেছেন কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মাধ্যমে। যিনি কক্সবাজার শহরের পূর্ব কুতুবদিয়া পাড়া এলাকায় বসবাস করেন। সেই হিসেবে কুতুবদিয়া ‍উপজেলা এখনও করোনা মুক্ত রয়েছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!