করোনা যুদ্ধে জিতে বাড়ি ফিরছেন আরও ৬ ‘যোদ্ধা’

‘করোনা জয়’ করে বাড়ি ফিরলেন কক্সবাজার ও নাইক্ষ্যংছড়ির ৯ জন

আনছার হোসেন
সম্পাদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারে অদেখা শত্রু ‘করোনা’র সাথে যুদ্ধ করে জয়ী আরও ৬ জন ‘যোদ্ধা’! যাদের চারজন আজ রাতেই সুস্থ শরীর নিয়ে বাড়ি ফিরবেন। অন্য দুইজন বাড়ি ফিরবেন আগামিকাল রোববার (১০ মে)। এ নিয়ে কক্সবাজারের রামু আইসোলেশন হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা ভাগ্যবানদের সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ১৫ জনে।

করোনা ‘পজিটিভ’ আসার পর আরও দুই দফা টেষ্টে ‘নেগেটিভ’ আসার পর তাদের ছাত্রপত্র দিয়েছে রামু আইসোলেশন হাসপাতাল। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাব থেকেও তাদের নাম ‘পজিটিভ’ তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

বিষয়টি কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ক্লিনিক্যাল ট্রপিক্যাল মেডিসিন বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. মো. শাহজাহান নাজির ও রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়–য়া।

সুত্র মতে, নতুন ভাবে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরাদের তালিকায় আছেন উখিয়ার দুইজন আবু তাহের ও ফায়জা মনি, কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ার শাহআলম, মহেশখালীর দুইজন মোহাম্মদ রিদুয়ান ও মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এবং টেকনাফের নুরুল আলম।

রামুর আইসোলেশন হাসপাতাল পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ডা. নোবেল কুমার বড়–য়া বলেন, আরও ৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাদের শনিবার (৯ মে) বিকালেই ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। তবে এদের মধ্যে একজন রাতেই ঘরে ফিরে যাবেন। তিনি হলেন কক্সবাজার শহরের শাহআলম।

তিনি জানান, অন্য ৫ জনের মধ্যে উখিয়া ও টেকনাফের ৩ জন আজ রাতেই বাড়ি ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। নতুন শনাক্ত হওয়া উখিয়া ও টেকনাফের দুই রোগীকে নিয়ে যে অ্যাম্বুলেন্স আসবে সে এ্যাম্বুলেন্সেই সুস্থ হওয়া ৩ জনকে পাঠিয়ে দেয়া হবে। তবে মহেশখালীর দুইজনকে আগামিকাল (রোববার) সকালে ছাড়া হবে।

ডা. নোবেল কুমার জানান, বর্তমানে রামু আইসোলেশন হাসপাতালে ২১ জন রোগী রয়েছেন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন ৬ জন। ওরা চলে গেলে রোগী থাকবেন ১৫ জন। নতুন ভাবে যুক্ত হবেন দুইজন। তখন রোগীর সংখ্যা হবে ১৭ জন।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের সহকারি অধ্যাপক ডা. মো. শাহজাহান নাজির জানান, বর্তমানে কক্সবাজারে ৮০ জন করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ইতোপূর্বে ১৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখন ৬ জন মিলিয়ে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৪ জনে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!