চকরিয়ায় ৩ আক্রান্তের একজন ওষুধ কোম্পানির এমআর, বাড়ছে আতঙ্ক

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ডা. ইউনুস, ডা. শামশুদ্দিন ও ডা. শাহজাহানের করোনা টেস্ট ‘নেগেটিভ’

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের বৃহত্তর উপজেলা চকরিয়ায় উপজেলা ও পৌরসভাকে ঘিরে মানুষের মাঝে করোনা আতংক বিরাজ করছে। প্রতিদিন কোন না এলাকা থেকে করোনা রোগীর খবরে সাধারণ মানুষের মাঝে এই আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ মে) চকরিয়ায় নতুন করে ৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজন ওষুধ কোম্পানির কর্মকর্তা রয়েছেন। তিনি চকরিয়া পৌরসভার ৯ নাম্বার ওয়ার্ডের ৩৫ বছরের যুবক। ওই যুবক ডেল্টা ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানীর চকরিয়ায় ফিল্ড ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত।

অপর দুইজন হলেন পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের দরবেশকাটা এলাকার ৫৫ বছর বয়স্ক মহিলা ও চকরিয়া পৌরসভার ফুলতলা এলাকার ৩২ বছরের যুবক।

এ নিয়ে উপজেলায় করোনা সংক্রমণ রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২০ জনে দাঁড়িয়েছে। এতে প্রথম করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী খুটাখালীর মুসলিমা খাতুন বর্তমানে সুস্থ হয়ে বাড়িতে রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৭ মে) বিকেলে আক্রান্ত নতুন তিন রোগীর বিষয়টি কক্সবাজার ভিশন ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ শাহবাজ।

তিনি বলেন, বুধবার উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কয়েকজনের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত রিপোর্টের মধ্যে চকরিয়া উপজেলার নতুন তিনজন ব্যক্তির করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ আক্রান্ত হিসেবে পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

কোভিড-১৯ আক্রান্তদের মধ্যে এক ব্যক্তি চকরিয়া জোনে জুলফার বাংলাদেশ নামের একটি কোম্পানিতে এমআর হিসেবে চাকরি করেন। তিনি ও তার ফ্যামিলিতে আগে আক্রান্ত চারজনসহ মোট পাঁচজন। তারা বর্তমানে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালে নতুন উদ্বোধনকৃত করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা যায়।

আক্রান্ত ওই ব্যক্তি ছাড়া অপর দুই ব্যক্তি কেউ ইতোপুর্বে কোথাও গিয়েছিলেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি হাসপাতাল ও উপজেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ।

করোনায় আক্রান্ত বিষয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ বলেন, করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)
আক্রান্ত নতুন তিন রোগীর ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে তাদের বাসা বাড়ি চিহ্নিত করা হয়েছে। তৎমধ্যে পৌরসভার ফুলতলার আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি পূর্ব থেকেই লগডাউন করা। অপর দুই ব্যক্তির বাসা-বাড়িও লগডাউন করার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

এছাড়াও তাদের সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তিদের খোঁজ নিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!