করোনা থেকে বাঁচতে কক্সবাজার-রামুবাসিকে যা বললেন এমপি কমল

করোনা থেকে বাঁচতে কক্সবাজার-রামুবাসিকে যা বললেন এমপি কমল

আবুল কাশেম সাগর, রামু
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

মরণব্যাধী করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাব নিয়ে কক্সবাজার-০৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) রাত ১০টা ৩১ মিনিটে তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক টাইমলাইনে ভিডিও বার্তাটি পোষ্ট করেন।

এমপি কমলের দেয়া ৯ মিনিট ৪২ সেকেন্ডের ভিডিও বার্তাটি কক্সবাজার ভিশন ডটকম পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

প্রিয় কক্সবাজারবাসী,
আসসালামু আলাইকুম।
করোনা রোগে সারাদুনিয়া এখনো বিপযস্ত, পৃথিবীর দেশে দেশে মৃত্যুর মিছিল বাড়ছে। আমরাও করোনা হতে মুক্ত হয়নি। এখনো করোনা রোগ ধেয়ে আসছে। বাংলাদেশে করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে এবং ইতিপূর্বে আমাদের পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ। সেই যুদ্ধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক নির্দেশিত মানুষবাহীত রোগকে মানুষ থেকে বিচ্ছিন্ন করতে পারলে শুধুমাত্র এই করোনা রোগ প্রতিহত করা সম্ভব। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘সকলেই আমরা যে যার যার অবস্থানে অবস্থান করি।’ তারই প্রেক্ষিতে আজকে সারাদেশে বাঙ্গালী জাতি যে সহযোগিতা দেখাচ্ছেন সকলকে আমি, বিশেষ করে কক্সবাজার-রামুবাসীকে আমি বিনয়ের সাথে অনুরোধ করবো- আসুন, এই রোগকে প্রতিহত করতে গেলে আমরা সকলেই যে যার অবস্থানে থাকি। বর্জন করি বিয়ে অথবা যে কোন কোলাহলপূর্ণ …।

সমাজে যে কোন জনগণ আমরা যদি সকলেই যদি সকলের দায়িত্ব পালন করি। তাহলে একমাত্র মরণব্যাধী করোনা রোগ হতে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গতকাল ঘোষণা দিযেছেন, যারা দরিদ্র, যারা দিনে এনে দিনে খায় তাদের জন্য তিনি সাহায্যের হাত প্রসারিত করেছেন। আমাদের সমাজে ৩০ ভাগ মানুষ দিনে এনে দিনে খায়। তাদের যাতে খাদ্যের অভাব নাহয়, তাদের যাতে কষ্ট না পায়, আমি আমার নির্বাচনি এলাকার মেয়র মহোদয়, কাউন্সিলরবৃন্দ, সন্মানিত চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যবৃন্দ সকলকে বিনয়ের সাথে অনুরোধ করবো স্ব স্ব এলাকার জনগণের খোঁজ-খবর রাখুন এবং দরিদ্র মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়ান।

আমি বিত্তবান এবং সচ্ছল যারা আছেন তাদের সকলকে বলবো- আপনার আত্নীয়-স্বজন, আপনার প্রতিবেশী এবং আপনার এলাকাবাসী কে কিভাবে আছে আপনারা দয়া করে খোঁজখবর রাখবেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে নির্দেশনা দিয়েছেন এ সংকট না যাওয়া পর্যন্ত কোন মানুষকে এনজিওর কিস্তি পরিশোধ করতে হবে না। যারা বড় বড় ব্যবসায়ী আছেন তাদেরকে ঋণখেলাপী করা হবে না। দরিদ্র মানুষের জন্য ভিজিএফ, ভিজিডি, ১০ টাকার চালসহ সমস্ত সরকারী কর্মসূচী অব্যাহত থাকবে এবং যারা খাদ্যের কষ্ট পায় আমাদেরকে নির্দেশনা দিয়েছেন তাদের কাছে খাদ্য পৌছে দেওয়া।

আমি জনগণকে বলবো- আপনারা তাদের সাথে যোগাযোগ করে সরকারী সাহায্য সহযোগিতা আপনারা নেওয়ার জন্য চেষ্টা করেন। কয়েক দিনের মধ্যে আমরা পুরো টিমসহ আপনাদের কাছে পৌছে যাবো।

এই করোনা রোগের বিরুদ্ধে আমাদের সাহসী সেবক ডাক্তারবৃন্দ নিজের জীবন ঝুঁকি নিয়ে যুদ্ধ করছেন। আজকে আমরা কক্সবাজার জেলার দুটি আইসোলেশন কেন্দ্রের মধ্যে একটি রামু হাসপাতালে উদ্বোধন করেছি। যদিও রামু হাসপাতালে এখনো করোনা রোগি আসে নাই। তারপরও আমাদের এক ডাক্তারের বিশাল টিম, নার্স, ষ্টাফ, বয়সহ বিশাল টিম কাজ করে যাচ্ছে। তারা তৈরী রয়েছে।

সন্মানিত কক্সবাজারবাসী, আমরা যে যেখানে আছি মানুষ হতে দূরে থাকি। মানুষের সাথে যদি আমরা মিশি মানুষের মাধ্যমে এ রোগটি ছড়িয়ে পড়তে পারে। আপনাদের সকলের কাছে এই সহযোগিতা কামনা করছি।

যারা ব্যবসায়ীরা আছেন তাদের প্রতি বিনয়ের সাথে অনুরোধ করবো- পুরা মানবজাতির এই দুঃসময়ে দয়া করে আমরা কেউ নিত্য পণ্যদ্রব্যের দাম বাড়াবো না। আমি সকলকে অনুরোধ করবো- আপনারা কেউ আপনাদের মূল্য বাড়াবেন না। এই মানব জাতির দুঃসময়ে আপনারা পাশে থাকুন। হালালভাবে ব্যবসা করুন। আপনাদের পাশেও আমরাও থাকবো।

আইন-শৃংখলাবাহিনী অনেক কষ্ট করে যাচ্ছেন। এই সময়ে আপনারা সকলেই যাতে কেহ আইন শৃংখলার অবনতি ঘটাতে না পারে এ বিষয়ে আপনারা চোখ কান খোলা রাখুন। বড় ধরণের ধর্মীয় অনুষ্ঠান থেকে নিরাপদ দূরত্ব থেকে আপনারা পালন করুন।

ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে আমি অনুরোধ করবো- স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, মাদ্রাসা সকল ছাত্র-ছাত্রীদের বলবো- এখন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। জীবনে পাঠ্যসূচি পড়তে পড়তে অনেক সময় কাটাতে হয়। ঠিক এই সময়ে যে যে বিষয়ে জানতে ইচ্ছুক, কেহ বিজ্ঞান বিষয়ে জানতে ইচ্ছুক, কেউ কৃর্ষি বিজ্ঞানের আবিস্কার বিষয়ে জানতে ইচ্ছুক, কেউ মানব জাতির অথবা বাঙ্গালী জাতির তথা স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাস বিষয়ে জানতে ইচ্ছুক, কেউ মেডিকেল স্বাস্থ্য নিয়ে জানতে ইচ্ছুক, যে যে বিষয়ে পড়তে চান, সাহিত্য, রচনা, কবিতা আপনারা এই সময়ে পড়ে ফেলুন। এই সময়ে যে যেটুকুন আপনারা পড়তেই ব্যস্ত থাকুন। টেলিভিশন যেমনে দেখতে হবে, টেলিভিশনের মাধ্যমে ঘরে বসে যদি আপনারা এই পড়ায় সময় কাটান যে জ্ঞান অর্জিত হবে এই জ্ঞানের মাধ্যমে আপনারা জ্ঞানে আপনারা আলোকিত থাকবেন। আমি সকলকে বলবো- শুধু আড্ডার মাধ্যমে নয়, পড়াশোনার মাধ্যমে বই পড়ে আপনারা আপনাদের কিছুটা সময় কাটান। এই জ্ঞান আপনাদের আরও বেশী সমৃদ্ধি করবে, আলোকিত করবে, সন্মানিত করবে এবং সন্মানিত হওয়ার কারণে এই জ্ঞান একদিন আপনাদের ক্ষমতাবান করবে।

আমি কক্সবাজার-রামুবাসীকে বলবো- আসুন, আমরা আতংকিত নয়, আমরা সতর্ক হই। আমরা সতর্কতার সাথে যদি চলি আমাদের ঘরে ষাট উর্ধো মা-বাবা আছেন, ভাই-বোনেরা আছেন তাদেরকে যদি নিরাপদ রাখি, আমরাও যদি নিরাপদ দূরত্বে থাকি তাহলে ইনশাআল্লাহ এই করোনা রোগ আমাদের কাছে আসতে পারবে না।

আমি কক্সবাজার-রামুবাসীকে বলবো- আসুন, আমরা মাত্র ১০ দিন ধৈয্য ধরি, এই করোনার বিরুদ্ধে সংগ্রাম করি। মহান রাব্বুল আল আমিন আল্লাহ তায়ালার কাছে আমরা প্রার্থনা করি, যাতে আল্লাহ তায়ালা এই মরণব্যাধী করোনা রোগ থেকে দূরে রাখেন, আমিন।

খোদা হাফেজ, আসসালামু আলাইকুম।
জয় বাংলা।

সাইমুম সরওয়ার কমল
মাননীয় সাংসদ, কক্সবাজার-০৩।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!