কক্সবাজারে প্রথম করোনা রোগীর মেয়ের শ্বশুরবাড়ি ‘লকডাউন’

কক্সবাজারে প্রথম করোনা রোগীর মেয়ের শ্বশুরবাড়ি ‘লকডাউন’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈদগাঁও
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে জেলার প্রথম সনাক্ত হওয়া করোনা রোগীর মেয়ে সাফিয়া আক্তারের জালালাবাদ ইউনিয়নের শ্বশুরবাড়ি ‘লকডাউন’ করেছে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধি।

বুধবার (২৫ মার্চ) দুপুরে বাড়িটি লকডাউন করা হয়। সেই বাড়িটি হলো জালালাবাদ ইউনিয়নের ৪ নাম্বার ওয়ার্ডের পূর্ব মিয়াজী পাড়ার মৃত ফরিদুল আলমের ছেলে মাষ্টার রফিকুল ইসলামের।

সুত্র জানায়, গত মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) খুটাখালী ইউনিয়নের এক বয়স্কা নারীর শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবাণু সনাক্ত হয় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে। ওই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকে কক্সবাজার জেলাজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। ঘটনার পর প্রশাসনের পক্ষ থেকে ওই মহিলার আত্মীয়-স্বজনদের বাড়ি সন্ধান করা হয়।

সুত্র মতে, গত মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) দুপুরে চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের নতুন মহাল এলাকায় শনাক্ত হওয়া রোগীর অপর এক মেয়ের শ্বশুর বাড়িও ‘লকডাউন’ করে প্রশাসন।

এদিকে খবর পেয়ে জালালাবাদ ইউনিয়নের পুর্ব মিয়াজী পাড়া এলাকায় আরেক মেয়ের শ্বশুর বাড়ি লকডাউন করে প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি।

এদিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে ইউপি চেয়ারম্যান ইমরুল হাসান রাশেদ, প্যানেল চেয়ারম্যান ওসমান সরওয়ার ডিপো, সচিব মোস্তাক আহমদসহ গ্রাম পুলিশ-দফাদারদের নিয়ে ওই বাড়িতে লাল পতাকা টাঙিয়ে দেয়া হয় এবং ১৪ দিন পর্যন্ত ঘর থেকে কাউকে বের না হওয়ার নির্দেশনা সম্বলিত দেয়ালিকা টাঙানো হয় বাড়ির সামনে। এই নির্দেশ অমান্য করলে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়ানো সন্দেহে এই বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!