সাইফুল কমিউনিটি সেন্টারে হানা দিল পুলিশ, সতর্ক করলেন ম্যাজিষ্ট্রেট

সাইফুল কমিউনিটি সেন্টারে হানা দিল পুলিশ, সতর্ক করলেন ম্যাজিষ্ট্রেট

বিশেষ প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে সামাজিক অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে না করতেই বিয়ে অনুষ্টানে হানা দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। শুক্রবার (২০ মার্চ) দুপুরে কক্সবাজার শহরের অতিপরিচিত সাইফুল কমিউনিটি সেন্টারের একটি বিয়ে অনুষ্টানে হানা দেন জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। যদিও মাত্র সকালেই কক্সবাজারে সভা-সমাবেশ ও সামাজিক, সাংস্কৃতিসহ সবধরণের গণজমায়েতের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ‘গণজমায়েত’মুলক অনুষ্টান বন্ধে নির্দেশনা জারির পর ‘অননুমোদিত’ ভাবে বিয়ে অনুষ্টাান আয়োজনের অভিযোগ তুলে এই অভিযান চালানো হয়। ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশের হানায় বিয়ে অনুষ্টান পন্ড হলেও আয়োজকদের কোন জরিমানা করেনি ভ্রাম্যমান আদালত। তবে তাদের সতর্ক করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, পুলিশ বিয়ে অনুষ্ঠানে গিয়ে উভয়পক্ষের জমায়েত পন্ড করে দিতে চাইলে উভয়পক্ষের মুরব্বিরা পুলিশকে কোন রকমে বুঝিয়ে খাওয়া দাওয়া, কোন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়া কণেকে তাৎক্ষনিক শ্বশুর বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য কিছুক্ষণ সময় চান। পুলিশ তখন কিছুটা নমনীয়তা দেখিয়ে তাদের সতর্ক করে কমিউনিটি সেন্টার ত্যাগ করেন।

পরে জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পূণরায় সাইফুল কমিউনিটি সেন্টারে পুলিশসহ গিয়ে বিয়ের উভয়পক্ষকে সতর্ক করে দেন।

বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন সাইফুল কমিউনিটি সেন্টারের সত্বাধিকারী মোঃ সাইফুল ইসলাম।

এই বিয়েটিতে কনেপক্ষ ছিলেন কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুস্কুল ইউনিয়নের বাসিন্দা এবং বরপক্ষ হলেন রামু উপজেলার বাসিন্দা। তবে দাবি, সামাজিক অনুষ্টানে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে শুক্রবার সকালে, অথচ বিয়ের এই আয়োজন ঠিক করা হয়েছে একমাসেরও বেশি সময় আগে।

এদিকে কোন কমিউনিটি সেন্টার, কনভেনশন সেন্টার, হোটেলে কোন জমায়েতের মাধ্যমে কোন অনুষ্ঠান হলে নির্দেশনা জারির প্রথমদিন হিসাবে তাদের সতর্ক করা হচ্ছে। শনিবার (২১ মার্চ) থেকে এ বিষয়ে জেলা-জরিমানাসহ কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীল উর্ধ্বতন এক কর্মকতা।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধে ওয়াজ মাহফিল, তীর্থযাত্রাসহ সব ধরণের ধর্মীয়, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়ানুষ্ঠান বন্ধ ঘোষণ করেছেন কক্সবাজারের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। শুক্রবার (২০ মার্চ) থেকে এই ঘোষণা কার্যকর করা হয়েছে।

কেউ এই নির্দেশ অমান্য করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে হুশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!