কক্সবাজারে ‘কোয়ারেন্টাইন’ অমান্য করে দন্ড পাওয়া ৩ প্রবাসিই রামুর বাসিন্দা

কক্সবাজারে ‘কোয়ারেন্টাইন’ অমান্য করে দন্ড পাওয়া ৩ প্রবাসিই রামুর বাসিন্দা

রামুতে সদ্য প্রবাসফেরত ব্যক্তিকে করোনা ভাইরাস নিয়ে সতর্ক করছেন রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রনয় চাকমা এবং পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের কাছের উপজেলা রামুতে সৌদিআরব, দুবাই ও ওমান ফেরত ৩ প্রবাসিকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। চলমান ‘করোনা’ পরিস্থিতিতে সদ্য দেশে এসে ‘হোম কোয়ারান্টাইনে’র পরিবর্তে বিভিন্নস্থানে ঘোরাঘুরি করায় তাদের এই অর্থদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (১৮ মার্চ) বিকাল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের হাজারীকুল, বাইপাস ও কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের ফুলনীরচর গ্রামে এসব অভিযান চালান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রণয় চাকমা।

এসময় হাজারীকুল গ্রামে সদ্য ওমান ফেরত যুবক কক্সবাজারে গেছেন বলে জানায় পরিবারের লোকজন। এ ঘটনায় ওই পরিবারকে তাৎক্ষণিক ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

কক্সবাজারে ‘কোয়ারেন্টাইন’ অমান্য করে দন্ড পাওয়া ৩ প্রবাসিই রামুর বাসিন্দা

অভিযানে অংশ নেয়া রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া জানান, বিদেশ থেকে আসার খবর পেয়ে আগেরদিন স্বাস্থ্যকর্মীরা ওই যুবককে ১৪ দিন ‘হোম কোয়ারান্টাইনে’ থাকার পরামর্শ দিয়েছিলন। কিন্তু তিনি তা না মেনে অন্যত্র ঘোরাঘুরি করেন।

পরে ফুলনীরচর এলাকার নুরুল আমিনের ছেলে সৌদিফেরত নুরুল আলম ছিদ্দিকী রাশেদকে ২০ হাজার টাকা এবং বাইপাস এলাকার ভাড়া বাসায় বসবাসরত দুবাইফেরত এক নারীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযান চলাকালে রামুর মন্ডলপাড়া গ্রামে ফ্রান্স থেকে আসা যুবককে ‘করোনা ভাইরাস’ সম্পর্কে সতর্ক করে কোয়ারান্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন ইউএনও প্রণয় চাকমা।

আগেরদিন রামুর একটি কোচিং সেন্টারকেও ১০ হাজার জরিমানা করা হয়।

উল্লেখ্য, সদ্য প্রবাসফেরত ব্যক্তিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে চিকিৎসা সেবাগ্রহণ এবং ১৪ দিন পর্যন্ত ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ থাকার জন্য সম্প্রতি রামু উপজেলার সর্বত্র মাইকিং করে প্রচারণা চালায় উপজেলা প্রশাসন।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!