ইরানে একদিনে মৃত্যু হলো আরও ৭৫ জনের

ইরানে একদিনে মৃত্যু হলোআরও ৭৫ জনের

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে ইরানে একদিনে আরও ৭৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২৯ জনে। উৎপত্তিস্থল চীন এবং ইউরোপের দেশ ইতালির পর ইরানেই সবচেয়ে বেশি মানুষ ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে মারা গেছে।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ বিভাগের প্রধান কিয়ানুশ জাহানপোর বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত দেশটিতে ১০ হাজার ৭৫ জন সংক্রামিত হয়েছে এবং ৪২৯ জন এতে প্রাণ হারিয়েছে।

এদিকে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্তৃপক্ষ অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ বাতিলে এড়িয়ে চলা ছাড়াও সব ইরানি নাগরিককে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

ইরানের রাজধানী শহর তেহরানে সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংক্রমণ ঘটেছে মাজানদারান প্রদেশে। তৃতীয় স্থানে আছে কোম প্রদেশ। প্রথম এখানে করোনা রোগী শনাক্ত হয়।

ইরানের কোনো অঞ্চলকেই এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে অবরুদ্ধ কিংবা কোয়ারেন্টাইন হিসেবে ঘোষণা করা হয়নি। তবে দেশটির ক্ষমতাসীন সরকার করোনার প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় ভ্রমণ এড়াতে নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হলেও দেশটিতে এখন পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে এসেছে। চীনে তিন হাজার ১৬৯ জনের প্রাণ কেড়ে নেয়া এই ভাইরাস এখন বিশ্বের ১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা প্রাদুর্ভাবকে বিশ্ব মহামারি হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে।

চীনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেও ভয়াবহ প্রকোপ শুরু হয়েছে এখন ইতালিতে। ইউরোপের এই দেশটি করোনা সামলাতে রীতিমতো হিমশিত খাচ্ছে। চীনের পর করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইতালিতে।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১২ হাজার ৪৬২ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৮২৭ জনের।