‘টেকনাফের গহীন পাহাড়ের রোহিঙ্গা ডাকাতদের নির্মূল করবে র‌্যাব’

‘টেকনাফের গহীন পাহাড়ের রোহিঙ্গা ডাকাতদের নির্মূল করবে র‌্যাব’

নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকনাফ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের পাহাড়ে পাহাড়ে রাম-রাজত্বকারি ডাকাত দলের বেশ কয়েকটি আস্তানা ও ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ ৭ ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) গোয়েন্দা শাখার প্রধান, লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইং লে. কর্নেল সরোয়ার-বিন-কাসেম।

তিনি বেলা ১টার দিকে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন গহীন পাহাড়ে র‍্যাব-রোহিঙ্গা ডাকাতদের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গত ২ মার্চ বন্দুকযুদ্ধের ওই ঘটনা ঘটেছিল।

ডাকাত দলের আস্তানা হিসাবে খ্যাত এডকা পাহাড়টি পরিদর্শন করার সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা থেকে আসা র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান ও মিডিয়া উইং লে. কর্ণেল সরোয়ার-বিন-কাসেম বলেন, আমরা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মানবতার খাতিরে আমাদের দেশে আশ্রয় দিয়েছি। যা পুরো বিশ্বের মধ্যে আমাদের সুনাম অর্জন হয়েছে। তাই বলে এই নয় যে, কিছু অসাধু রোহিঙ্গা তাদের নিজস্ব জনবল গড়ে তুলে মাদক, গুম, খুনসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত হয়ে এই এলাকার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নষ্ট করে অশান্তি সৃষ্টি করবে।

তিনি বলেন, তাদের সেই অপতৎপরতা প্রতিরোধ ও পাহাড়ে লুকিয়ে থাকা শীর্ষ ডাকাতদের নির্মুল করার জন্য র‍্যাব সদস্যদের চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি মাদক পাচার প্রতিরোধ ও সন্ত্রাস দমনে আরো সফলতা পাওয়ার জন্য স্থানীয়দের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

তিনি বেশ কয়েকঘন্টা রোহিঙ্গা ক্যাম্প গুলোর আশেপাশে ডাকাত দলের রাত্রীযাপনের আস্তানা ও চলাচলের পথগুলো পরিদর্শন করেন।

এসময় তাঁর সাথে ছিলেন কক্সবাজারস্থ র‍্যাব-১৫ ব্যাটলিয়নের অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ, টেকনাফস্থ ইনচার্জ লেফট্যানেন্ট মির্জা শাহেদ মাহতাব।

এদিকে ৪ মার্চ (বুধবার) সকাল ১১টার দিকে র‌্যাবের গোয়েন্দা প্রধান লে. কর্ণেল সরোয়ার বিন কাসেম টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে হেলিকপ্টার যোগে অবতরণ করলে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন র‍্যাব-১৫ ব্যাটালিয়নের টেকনাফ (সিপিসি-১) ইনচার্জ লে. মির্জা শাহেদ মাহতাবসহ র‍্যাবের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!