পেকুয়ায় বন্দুক নিয়ে ধরা পড়লো দুই সহোদর

টেকনাফে ৩ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসিকে ধরিয়ে দিলেন স্থানীয় জনতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, পেকুয়া
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজারের উপকূলীয় উপজেলা পেকুয়ায় দেশীয় তৈরি দুটি বন্দুকসহ (এলজি) দুই ভাইকে আটক করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

রোববার (১ মার্চ) সকাল ৬টার দিকে উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের মিয়া পাড়া এলাকা থেকে র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের একটি দল অভিযান চালিয়ে আব্দুল জলিলকে আটক করেন। একইদিন সন্ধ্যায় তার ভাই আব্দুল মাবুদকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয় জনতা।

আটক দুইজনই একই এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে।

পেকুয়া থানা সূত্র জানায়, উদ্ধার করা আগ্নেয়াস্ত্রসহ আটক আব্দুল জলিলকে রোববার দুপুরে পেকুয়া থানায় হস্তান্তর করেছে র‍্যাব। এ ঘটনায় র‍্যাব-৭ এর ডিএডি মোঃ দুলাল হোসেন (সেনা) বাদী হয়ে পেকুয়া থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় আটক আব্দুল জলিলের ভাই আব্দুল মাবুদকেও আসামি করা হয়। পলাতক আসামী আব্দুল মাবুদকে রোববার সন্ধ্যায় আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয় জনতা।

মামলার বাদী র‍্যাব কর্মকর্তা মোঃ দুলাল হোসেন বলেন, পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের মিয়া পাড়া এলাকায় আব্দুল জলিলের বসতঘরে একদল মাদক ব্যবসায়ী মাদক বেচাকেনা করছে- গোপন সূত্রে এ খবর পেয়ে অভিযান চালায় র‍্যাব-৭ এর একটি টহল দল। র‍্যাব সদস্যরা ওই স্থানে পৌঁছালে দুইজন ব্যক্তি পালানোর চেষ্টা চালায়। র‍্যাব সদস্যরা আব্দুল জলিলকে ধাওয়া করে ধরতে সক্ষম হয়। তবে তার ভাই আব্দুল মাবুদ পালিয়ে যায়। পরে আটক আব্দুল জলিলের দেখানো মতে তারই বসতঘর থেকে দেশীয় তৈরি দুটি বন্দুক উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় আটক আব্দুল জলিল ও পলাতক আব্দুল মাবুদের বিরুদ্ধে পেকুয়া থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

এব্যাপারে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল আজম বলেন, র‍্যাবের দায়ের করা মামলায় আটক আব্দুল জলিলকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

তিনি জানান, স্থানীয় জনতার সহায়তায় আটক আব্দুল মাবুদকে সোমবার আদালতে পাঠানো হবে।

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!