ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতির নতুন উপদেষ্টা পরিষদ ও নির্বাহী কমিটির নেতৃত্বে নাসির উদ্দিন ও হেলালুদ্দীন আহমেদ

ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতির নতুন উপদেষ্টা পরিষদ ও নির্বাহী কমিটির নেতৃত্বে নাসির উদ্দিন ও হেলালুদ্দীন আহমেদ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

কক্সবাজার সমিতি, ঢাকার জরুরী সাধারণ সভায় একুশ সদস্য বিশিষ্ট নতুন উপদেষ্টা পরিষদ ও তেপ্পান্ন সদস্য বিশিষ্ট নতুন নির্বাহী কমিটি অনুমোদিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) এই সভা অনুষ্টিত হয়।

ঘোষিত একুশ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক সচিব এ এম এম নাসির উদ্দিন। তেপ্পান্ন সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী নির্বাহী পরিষদের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন মেঘনা গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মোহাম্মদ খোরশেদ আলম।

সদ্যবিলুপ্ত কমিটির সভাপতি প্রফেসর ডঃ আনসারুল করিমের সভাপতিত্বে জরুরী এই সাধারণ সভায় ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতির জীবন সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পবিত্র কোরআন হতে তেলাওয়াতের পর ইতিমধ্যে মৃত্যুবরণ করা জীবন সদস্যদের আত্মার মাঘফেরাত কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন ও দোয়া করা হয়।

মোহাম্মদ খোরশেদ আলমের পরিচালনায় সভার প্রথমে সাংগঠনিক কার্যক্রম সম্বন্ধে অতিবাহিত করে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ডঃ আনসারুল করিম। তিনি বিগত এক দশক ধরে সমিতির কার্যক্রম স্থবির থাকায় নির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে দূঃখ প্রকাশ করেন ও গঠনতন্ত্র মোতাবেক নতুন কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তরের আকাংক্ষা ব্যক্ত করেন। তিনি সমিতিকে গতিশীল করার জন্য স্থায়ী অফিস ও শীঘ্রই পুনর্মিলনী আয়োজনের মাধ্যমে কক্সবাজারবাসীকে একত্রিত করার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন।

ঢাকাস্থ কক্সবাজার সমিতির নতুন উপদেষ্টা পরিষদ ও নির্বাহী কমিটির নেতৃত্বে নাসির উদ্দিন ও হেলালুদ্দীন আহমেদ

সাধারণ সভায় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠিত হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন আইন মন্ত্রনালয়ের সাবেক যুগ্ম সচিব ও কক্সবাজার সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক একে মোহাম্মদ হোছাইন এবং নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এডভোকেট ফখর উদ্দিন ও নুর মোহাম্মদ। সাধারণ সদস্যরা এই নির্বাচন কমিশন অনুমোদন করেন।

সাধারণ সদস্যদের অনুমোদনের মাধ্যমে নতুন সদস্যদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করা হয়। এরপর উপদেষ্টা পরিষদ সাত থেকে একুশ ও নির্বাহী কমিটি একুশ থেকে তেপ্পান্ন সদস্য করার প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।

প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্যে একে মোহাম্মদ হোছাইন তাদের প্রতি আস্থা রাখার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান। অপর নির্বাচন কমিশনার এডভোকেট ফখর উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে কক্সবাজার সমিতি ভবিষ্যতে কক্সবাজারে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হবে বলে আশা প্রকাশ করে সংশ্লিষ্টদের অবদান রাখার আহবান জানান।

এরপর সাধারণ সদস্যদের মধ্য থেকে প্রস্তাবিত একুশ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা পরিষদ ও তেপ্পান্ন সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী নির্বাহী কমিটি অনুমোদন করা হয়।

সবার সম্মতিক্রমে সাবেক সচিব এএমএম নাসির উদ্দিনকে উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়। তেপ্পান্ন সদস্য বিশিষ্ট নির্বাহী কার্যকরী পরিষদের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন মেঘনা গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মোহাম্মদ খোরশেদ আলম।

নবনির্বাচিত সভাপতি হেলালুদ্দীন আহমেদ তাঁর বক্তব্যে সমিতির গতিশীলতা নিশ্চিতকরণে সবার পারস্পরিক আস্থা, বিশ্বাস স্থাপনের উপর গুরুত্বারুপ করেন। তিনি তাঁকে সভাপতি নির্বাচিত করায় সবাইকে ধন্যবাদ জানান ও সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান এএমএম নাসির উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে কক্সবাজার সমিতি কক্সবাজারের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট ইস্যু নিয়ে কাজ করবে আশা প্রকাশ করেন। তিনি সমিতি নিকট অতীতের ব্যর্থতা ভুলে গিয়ে নতুন উদ্যমে এগিয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান ও কক্সবাজার সমিতিকে গতিশীল করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন।