এবার পৌরসভা কাউন্সিলরের বাড়িতে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ!

একই শ্রেণীর ছাত্রের ধর্ষণে সন্তান প্রসব করলো মাদ্রাসাছাত্রী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় উত্তাল পরিস্থিতির মধ্যে এবার রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভার এক কাউন্সিলরের বাড়িতে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার (০৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কাউন্সিলরের ছেলে ও তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন গোদাগাড়ী পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহীদুল ইসলামের ছেলে ওসমান গণি (১৯) এবং তার সহযোগী রিদুয়ার আলী খন্দকার (১৮) ও তারেক (১৮)।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রী স্থানীয় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। প্রেমের সূত্র ধরে বিয়ের প্রলোভনে তাকে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহীদুলের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। ওই বাড়িতেই তাকে গণধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় তিনজনকে আসামি করে গোদাগাড়ী থানায় মামলা করেন স্কুলছাত্রীর বাবা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গোদাগাড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাইরুল ইসলাম বলেন, স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় রাতেই অভিযান চালিয়ে আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য স্কুলছাত্রীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত রোববার রাতে কুর্মিটোলায় সড়কের পাশে ফুটপাত থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। তিনি এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। তবে এখন পর্যন্ত ধর্ষক গ্রেফতার হয়নি।