শহরে অগ্নিদগ্ধে প্রাণ হারালো দুই মাসের শিশু

কক্সবাজার শহরের নতুন বাহারছড়া এলাকায় একটি কলোনিতে অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেছে ১২ টি ঘর। ওইসময় আগুনে দগ্ধ হয়ে প্রাণ গেছে দুই মাস বয়সী এক শিশুর। শুক্রবার (৩ জানুয়ারী) নতুন বাহারছড়া এলাকার বদিউল আলম নামে এক ব্যক্তির ভাড়া বাসায় সন্ধ্যা ৬টার দিকে এঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যার ৬টার দিকে বদিউল আলমের মালিকাধীন ভাড়া বাসায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পরে দমকল বাহিনী দেড় ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নেভাতে সক্ষম হন। এঘটনায় দুই মাস বয়সী এক মেয়ে শিশু মারা গেছে। আগুনে পুড়ে গেছে ১২ টি ঘর। কক্সবাজার দমকল বাহিনীর উপ সহকারি পরিচালক আব্দুল মালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটের দিকে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে দমকল বাহিনীর সদস্যরা। পরে সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর পুড়ে যাওয়া একটি ঘর থেকে দুই মাস বয়সী এক শিশুর লাশ পৃষ্ঠা উদ্ধার করা হয়। আগুনে পুড়ে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। পরে শিশুটির লাশ স্থানীয় কাউন্সিলের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তিনি আরও জানান, যে ঘর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয় সেই ঘর থেকেই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রায় ৪ থেকে ৬ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দমকল বাহিনী কর্মকর্তা আব্দুল মালেক বলেন, যেখানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে সেখানে গাড়ি প্রবেশ করানো মোটেও সম্ভব নয়। সরু রাস্তা আর রাস্তার মাঝে অবৈধভাবে দোকান বসানোর কারণে ঘটনাস্থলে গাড়ি নিতে অনেক সমস্যা হয়েছিল। একারণে আগুন নিভাতেও সময় লেগেছে। স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, নিহত শিশুটির পিতার নাম মো. তারেক। তিনি পেশায় একজন জেলে। বর্তমানেও মাছ ধরার জন্য সাগরে আছেন। তারা সেখানে ভাড়া থাকেন। গ্যাসের চুলা জ্বালিয়ে রেখে বাড়ি থেকে বের হয়েছিল তারেকের স্ত্রী রিনা। পরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়ে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। দ্রুত আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে ১২ টি গর পুড়ে যায়। এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার। এসময় কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম মাহফুজুর রহমান, স্থানীয় কাউন্সিলর শাহেনা আক্তার পাখি।

ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার বলেন, প্রাথমিকভাবে অগ্নিকাণ্ডের নিহত শিশুর পরিবারকে নগদ ২৫ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়। আর অন্যান্য পরিবারগুলোর মাঝে কম্বল ও খাবার বিতরণ করা হয়। অগ্নিকাণ্ডের শিকার পরিবারগুলোর থাকার ব্যবস্থা করার জন্য পৌর মেয়রকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।