শহরের টেকনাফ পাহাড়ে সন্ত্রাসী হামলা, মা-মেয়েকে বেদড়ক মারধর

কক্সবাজার শহরের টেকনাফ পাহাড় এলাকায় তুচ্ছা ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসতবাড়িতে হামলা করেছে সন্ত্রাসীরা। ওই ঘটনায় দুইজন মহিলা আহত হয়েছেন। শুক্রবার (০৩ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়ার টেকনাফ পাহাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, আলী হোসেনের স্ত্রী রাজিয়া বেগম (৪৫), তার মেয়ে জান্নাতুল বাকিয়া (১৫)। ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা আহত দুইজনকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।
আহতদের পরিবারের অভিভাবক আলী হোসেন জানান, গতকাল শুক্রবার সকাল বেলা বাড়ির সামনে কোন কারণ ছাড়া ঝগড়া সৃষ্টি করে স্থানীয় সন্ত্রাসীপ্রকৃতির কিছু লোকজন। মুহুর্তের মধ্যেই অস্ত্রে স্বস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমার বাড়ির উপর হামলে পড়ে তারা। যদিও ওই সময় বাড়িতে একজন পুরুষও ছিলেন না। কিছু বুঝে উঠার আগেই লোহার রড, লাঠি, ধারালো দা ও লম্পা কিরিচ দিয়ে বাড়িতে হামলা চালায় স্থানীয় বশির আহমদের ছেলে আবু নাছের (২৬), ফজল আহমদের ছেলে সোহাগ (১৯) ও বশির আহমদের মেয়ে জমিলা আক্তার (২৩)।
আলী হোসেন জানান, বাড়িতে থাকা তার স্ত্রী ও মেয়ের উপর বেদড়ক মারধর করে সন্ত্রাসীরা। ওই সময় ঘরের টিন কুপিয়ে ও দরজা জানালা ভেঙ্গে প্রায় ৩০ হাজা টাকার ক্ষতি সাধন করে। হামলার এক পর্যায়ে আহতরা মারাত্বক জখম হয়ে মাটিতে লুড়িয়ে পড়লে হামলাকারীরা আহত দুইজনরে কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার চুরি করে নিয়ে যায়।
এই বিষয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, গুরতর আহত রাজিয়া বেগম, জান্নাতুল বাকিয়ার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। এছাড়াও ডান হাতের আঙ্গুল ও দুই হাতে মারাত্বক জখম রয়েছে।
এদিকে বিষয়টি নিয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় জড়িতদের বিরুদ্ধে একটি এজাহার দায়ের করেছেন আলী হোসেন।