ভালোবাসা, প্রেম নয়!

ভালোবাসা, প্রেম নয়!

আনছার হোসেন
সম্পাদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

১.
তিনি একজন সিনিয়র সাংবাদিক। মাঝে মাঝে রেগে গেলেও তিনি নিতান্তই ভদ্রলোক। সাংবাদিকতা জীবনের শুরু থেকেই এই মানুষটির সাথে আমার পরিচয়। সেই থেকে দেখছি, আমাকে ছোট ভাইয়ের মতোই ভালোবাসেন! সময়ে অসময়ে পরামর্শ দেন। আমার ভালো-মন্দের খোঁজ নেন। জেনে-বুঝে কেন আমি এই পেশায় (সাংবাদিকতা) আসলাম, সে নিয়েও তাঁর আফসোসের শেষ নেই। পারলে আমি যেন অন্য পেশায় ফিরে যাই- সেই পরামর্শও এই মানুষটি দিয়েছিলেন!

আমি ধরে নিতেই পারি, মানুষটি আমাকে অত্যন্ত স্নেহ করেন আর ভালোওবাসেন। কিন্তু আমার ভাবনা ছিল এক্কেবারেই ভুল। আসলে ওটা মানুষটির আসল চেহারা নয়। তিনি আসলে আমাকে ভালোবাসেন না, বরং ঘৃণা করেন, হয়তো পছন্দই করেন না।

যখন স্বার্থের বেলা আসলো, দেখি সেই মানুষটিই সবখানে আমার বিরোধিতা করছেন! অথচ আমি ভাবতেই পারছি না, কখনও তাঁর শক্রতা ছিল কিনা, কিংবা আমি কখনো বেয়াদবি করেছিলাম কিনা! আমার তেমন কোন ঘটনা মনেই পড়ছে না।

যদি এই মানুষটি আমাকে ভালোই বাসতেন, তাহলে তো সুসময়ে যেমন ভালোবাসতেন তেমনি অসময়ে ভালোবাসতেন। কিন্তু তেমনটা হলো কয়!

২.
তিনি একজন নবীন সাংবাদিক। যখন তার সাথে আমার প্রথম পরিচয় হচ্ছিল তখন তিনি ছিলেন একটি লোকাল অনলাইনের সাথে যুক্ত, সাথে জড়িয়ে আছেন পরিবেশবাদী সংগঠনেও। সবকিছু মিলিয়ে অল্পদিনেই আমার সাথে ভালো বন্ধুত্ব হয়ে গেলো। সময়ে অসময়ে, কাজে অকাজে মানুষটির সাথে আমি জড়িয়ে গেলাম।

কিন্তু এ কী! যখন স্বার্থের বেলা আসলো তখন দেখি ওই ‘আপন’ মানুষটারই দ্বৈতচরিত্র! আমি ভাবছি, ওই ব্যক্তি আমার কাছের মানুষ, আসলে তিনি ‘খেলছেন’ অন্যের হয়ে! এমন ভাব করছেন, তিনি আসলেই আমার জন্য সবকিছু করছেন!

‘প্রিয়’ এই মানুষটি এমন চরিত্র দেখে আমার মনের তালিকা থেকে বাদ পড়ে গেলেন। হিসাবের খাতায় তিনি হয়ে পড়লেন শুণ্যের খাতায়। কেননা, আমি তো তাকে বিশ্বাসই করতে পারছি না।

৩.
আমার সাংবাদিকতা জীবন ২৬ বছর পেরিয়ে গেছে। সারাজীবনই চলেছি ‘সোজা-সরল’ পথে। কূট-চাল দেয়ার চেষ্টা করিনি। অথচ শেষ বেলায় এসে আমি দেখছি, যাদের আমি কাছের মানুষ ভেবেছিলাম তারা আসলে কেউ আমার নয়! স্বার্থের প্রয়োজনে তারা এসেছিলেন, আর স্বার্থের প্রয়োজনে তারা অন্যের হয়ে কাজ করছেন।

৪.
আমরা প্রতিনিয়ত ভালোবাসার কথা বলি। ভালো সবাইকে বাসা যায়, কিন্তু ‘প্রেম’ সবার সাথে হয় না। এই জগতে বহু ভালোবাসার গল্প আছে যেগুলো ভালোবাসা পেরিয়ে অমর প্রেমগাথা হয়ে আছে। তাই বলে কী সব ভালোবাসা প্রেম হয়? ও হু!

আমিও সাংবাদিকতার এই জগতে এসে বেশ কিছুকাল কাটিয়ে বুঝলাম, এখানে ‘ভালোবাসা’ হয়, ‘প্রেম’ হয় না। আসলে আমি যাদের ভালোবাসার মানুষ ভেবেছিলাম তারাই যে আমার জন্য বিষ হাতে নিয়ে বসে আছে, বুঝতেই পারলাম না!

৫.
ভাবছি, পেশা হয়তো ছাড়তে পারবো না, এটা তো নেশার মতো হয়ে গেছে। কিন্তু ‘প্রেম’ না হওয়া সেই ‘কাছের’ মানুষগুলোকে ছাড়তে তো পারি! কী বলেন?

লেখকঃ আনছার হোসেন, নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার, নির্বাহী সম্পাদক ও বার্তা প্রধান, দৈনিক সৈকত (কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত প্রথম নিয়মিত দৈনিক) এবং সম্পাদক ও প্রকাশক, কক্সবাজার ভিশন ডটকম

(লেখাটি সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার’র স্মরণিকায় প্রকাশিত)

error: Content is protected!! অন্যের নিউজ নিয়ে আর কতদিন! এবার নিজে কিছু লিখতে চেষ্টা করুন!!