অস্ত্র ও গোলাবারুদ রাখায় মহেশখালীর গফুরকে ১৭ বছর কারাদন্ড

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যাকারি ৭ জনের ফাঁসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ রাখার অভিযোগে একজনকে দুই দফায় ১৭ বছর সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। কক্সবাজারের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল ৪ নাম্বার আদালতের বিচারক এবং যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মাহমুদুল হাসান এই আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওই আদালতের সরকারি কৌশলী এপিপি এডভোকেট এ.কে ফজলুল হক চৌধুরী।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, মহেশখালী উপজেলার বড় মহেশখালী ইউনিয়নের ছোট কুলালপাড়া এলাকার আব্দুস শুক্কুরের ছেলে আবদুল গফুরকে ২০১৬ সালের ১৪ আগস্ট হাতেনাতে অবৈধ অস্ত্র ও প্রচুর গোলাবারুদসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আটক করে। পরে আটককৃত আবদুল গফুরের বিরুদ্ধে ১৮৭৮ সালের অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ (এ) ও ১৯ (এফ) ধারায় মহেশখালী থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

সূত্র মতে, মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ ও অন্যান্য বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল ৪ নাম্বার আদালতের বিচারক মাহমুদুল হাসান অবৈধ অস্ত্র রাখার অভিযোগে আবদুল গফুরের বিরুদ্ধে ১৮৭৮ সালের অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ (এ) ধারায় ১০ বছর সশ্রম কারাদন্ড এবং গোলাবারুদ রাখার অভিযোগে একই আইনের ১৯ (এফ) ধারায় ৭ বছর সশ্রম কারাদন্ডাদেশসহ মোট ১৭ বছরের কারাদন্ডাদেশ দেন।

কারাদন্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি আবদুল গফুর কারাগারে রয়েছেন এবং বিচারক এই রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন।

মামলাটি রাষ্ট্রপক্ষে পরিচালনা করেন কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক ও এপিপি এডভোকেট এ.কে ফজলুল হক চৌধুরী।