‘বুলবুলে’ বন্ধ পেঁয়াজ আমদানি!

টেকনাফ বন্দরে পঁচে যাচ্ছে পেঁয়াজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকনাফ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

ধেয়ে আসছে ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’। ৪নং সতর্কতা সংকেত জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। গত দুইদিন ধরে বৈরী আবহাওয়ায় সাগর উত্তাল থাকার কারণে নৌপথে সমস্ত নৌযান চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

তথ্য নিয়ে জানা যায়, গত দুইদিন ধরে মিয়ানমার থেকে টেকনাফ স্থলবন্দরে পেঁয়াজ বোঝাই কোনো ট্রলার আসেনি। এতে বন্ধ রয়েছে পেঁয়াজ আমদানি।

এব্যাপারে টেকনাফ স্থলবন্দর ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্টের দায়িত্বরত কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন জানান, ৯ নভেম্বর (শনিবার) সকাল থেকে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ বোঝাই কোনো ট্রলার বন্দরে আসেনি। তবে ইতোপূর্বে আসা নোঙর করা ট্রলারের পেঁয়াজ গুলো খালাস করা হয়েছে।

স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক এম এ হাসেম বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের সংকেত পাওয়ার পর থেকে আমরা আপাতত পণ্য আমদানি বন্ধ রেখেছি। বৈরী আবহাওয়া ও ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’র প্রভাব কেটে গেলে মিয়ানমার থেকে আবারও প্রচুর পরিমাণ আমদানি করা হবে।

টেকনাফ বন্দরের বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়, চলতি নভেম্বর মাসের শুরু থেকেই মিয়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। তবে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ ও বৈরী আবহাওয়ার কারণে তিন থেকে চারদিন যাবৎ পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকতে পারে।

তারা বলেন, আবহাওয়া সল্প সময়ের মধ্যে স্বাভাবিক না হলে পেঁয়াজ রপ্তানিতে প্রচুর পরিমাণ ঘাটতি দেখা দেবে।

টেকনাফ স্থলবন্দর শুল্ক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার পেঁয়াজ আমদানির শেষ দুইদিনে মিয়ানমার থেকে রেকর্ড পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছিল। এ দুইদিনে বন্দরে ২ হাজার ৭৪৭ মেট্রিক টন পেঁয়াজ খালাস করা হয়েছে। পেঁয়াজভর্তি বেশ কয়েকটি ট্রলার বন্দরে নোঙর করা রয়েছে।