বিজিবির প্রেস ব্রিফিং

ফাঁকা গুলি ছুড়েছে বিজিবি, বিএসএফ সদস্য নিহতের দাবির তদন্ত চলছে

বিজিবির প্রেস ব্রিফিং

রাজশাহীর চারঘাটে পদ্মা-বড়ালের মোহনায় অবৈধ অনুপ্রবেশকারী ভারতীয় জেলেদের জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করায় বিজিবি ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে বলে দাবি করেছেন বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের রাজশাহী অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের সদর দফতরে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে একথা বলেন তিনি।

বিজিবি কর্মকর্তা ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ জানান, মা ইলিশ সংরক্ষণ কর্মসূচীর আওতায় মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পদ্মা নদীতে অভিযানে যায় বিজিবি। অভিযানে মাছ ধরার সময় তিনজন জেলেকে আটকের চেষ্টা করা হলে দুইজন পালিয়ে যান। তবে একজনকে জালসহ আটক করে নদীর এপারে নিয়ে আসা হয়। এ সময় জিজ্ঞাসাবাদে বিজিবি নিশ্চিত হয় আটক জেলে ভারতীয় নাগরিক। ঘটনার কিছুক্ষণ পর ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের কাগমারী ক্যাম্প থেকে চার সদস্যের একটি টহল দল স্পিডবোট নিয়ে অনুমতি ছাড়া শূন্য লাইন অতিক্রম করে অবৈধভাবে বাংলাদেশের ৬০০ থেকে ৬৫০ গজ ভেতরে নদীর এপারে বিজিবি টহল দলের কাছে আসে এবং আটক ভারতীয় নাগরিককে ছেড়ে দিতে বলে।

তিনি জানান, বিজিবি টহল দল পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ভারতীয় নাগরিককে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে বলে তাদের জানায়। কিন্তু বিএসএফ সদস্যরা ভারতীয় নাগরিককে বিজিবির উপস্থিতিতেই মারধর করেন। তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ারও চেষ্টা করা হয়। এতে বিজিবি সদস্যরা বাধা দিলে বিএসএফ সদস্যরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে আনুমানিক ৬ থেকে ৮ রাউন্ড ফায়ার করে। আত্মরক্ষার জন্য বিজিবির টহল দলও ফাঁকা ফায়ার করে। তখন বিএসএফ সদস্যরা ফায়ার করতে করতে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যান।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফেরদৌস মাহমুদ বলেন, ঘটনার পর বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিজিবি-১ ব্যাটালিয়ন ও ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সীমান্ত পিলার ৭৫/৩-এস থেকে আনুমানিক এক কিলোমিটার বাংলাদেশের ভেতরে পদ্মা নদীর চর শাহরিয়ার বাঁধ নামক স্থানে ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে এই পতাকা বৈঠক হয়। সেখানে বিএসএফ কমান্ড্যান্ট দাবি করেছেন তাদের একজন সদস্য নিহত এবং একজন আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা তাদেরকে জানিয়েছি ঘটনার সময় বিজিবি ফাঁকা ফায়ার করেছে। এতে হতাহতের ঘটনা না ঘটারই কথা। আমরা পতাকা বৈঠকে আটক ভারতীয় জেলেকে ফেরত দিইনি। তাকে চারঘাট থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। অবৈধ অনুপ্রবেশের জন্য তার বিরুদ্ধে মামলা হবে। পতাকা বৈঠকে উভয়পক্ষ তাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়ে একমত হয়েছে। এ বিষয়ে আরো আলোচনার জন্য সীমান্তে দ্রুতই একাধিক পতাকা বৈঠক করার বিষয়ে বিজিবি-বিএসএফ সম্মত হয়েছে।

উভয়পক্ষের মধ্যে শান্তিপূর্ণভাবে পতাকা বৈঠক শেষ হয়েছে বলেও জানান বিজিবির এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

এর আগে বিকেলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বরাত দিয়ে দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যমে দাবি করা হয়, বিজিবি ও বিএসএফ গুলি বিনিময়ের সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে বিএসএফ-এর হেড কন্সটেবল বিজয় ভান নিহত হয়েছেন। তার মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়। আহত হয়েছেন রাজবীর সিং। তিনি মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।