এফডিসিতে অপমানিত মৌসুমী

এফডিসিতে অপমানিত মৌসুমী

আসন্ন ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এফডিসিতে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) বিকালে এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করা চিত্রনায়িকা মৌসুমীর সঙ্গে খল অভিনেতা ড্যানিরাজের বাকবিতণ্ডায় জড়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই নিয়ে এই প্রতিবেদন লেখা অবধি এফডিসিতে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় জানা গেছে, বিকেলে মৌসুমীকে শুভেচ্ছা জানাতে শিল্পী সমিতিতে আসেন তার কয়েকজন ভক্ত। এ সময় শিল্পী সমিতিতে তাদের প্রবেশ নিয়ে ড্যানিরাজ অভদ্র ভাষায় চিৎকার করতে থাকেন। একপর্যায়ে তিনি মৌসুমীকে ধাক্কাও মারেন। এই সময় মৌসুমীকে কান্নাকাটি করতেও দেখা গেছে।

এদিকে এই ঘটনার কথা স্বীকার করে সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের মৌসুমী জানিয়েছেন, আমার সঙ্গে যারা দেখা করতে এসেছিলেন তারা চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ঠিক ওই সময়ে ড্যানিরাজ ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন। ভক্তদের সামনে আমাকে অপমান করেন। আঙুল তুলে আমাকে ড্যানি বলে, ‘হু আর ইউ?’ আমি মৌসুমীকে? আসলে তারা চাইছে একটা ঝামেলা বাধাতে। যেনো নির্বাচন বানচাল হয়ে যায়।

এদিকে ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত বর্তমান সভাপতি মিশা সওদাগর বলেন, ‘এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। মানে মৌসুমীকে আমার সামনে কোনো ধাক্কা দেওয়ার ঘটনা ঘটেনি। তবে ড্যানি মৌসুমীকে ‘আপনি কে?’ এমন প্রশ্ন করেছেন যা একজন শিল্পীর কাছে কাম্য নয়। এরপর মৌসুমীকে রুমে নিয়ে বসানো হয়। সেখানে মৌসুমী কান্নাকাটি করেছেন। এখন সব স্বাভাবিক আছে। আমরা একসঙ্গে গল্প করছি ।’

জানা গেছে, এই ঘটনার পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন তাৎক্ষণিকভাবে প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসর, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে নিয়ে আলোচনায় বসেন। সেখানে ড্যানিরাজ কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন।

এই প্রতিবেদন লেখা অবধি চিত্রনায়িকা মৌসুমী এফডিসিতে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে। তবে খল অভিনেতা ড্যানিরাজের অবস্থান সম্পর্কে কোন তথ্য জানা যায়নি।