টেকনাফের আয়শা পেটে ২০০০ ইয়াবা নিয়ে ধরা পড়লেন ময়মনসিংহে

টেকনাফের আয়শা পেটে ২০০০ ইয়াবা নিয়ে ধরা পড়লেন ময়মনসিংহে

ময়মনসিংহে আয়শা সিদ্দিকা ওরফে সামি নামে এক নারী মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ । শুক্রবার বিকেলে শহরতলীর দিঘারাকান্দা বাইপাস মোড়ে রেজা সিএনজি ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে তার পেটের ভেতর থেকে বিশেষভাবে পুটলা বানিয়ে বহন করা দুই হাজার পিস ইয়াবা বের করা হয়।

আটক আয়শা সিদ্দিকা ওরফে সামি কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের মৃত শামসুল হকের মেয়ে।

জেলা ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ জানান, শুক্রবার বিকেলে পুলিশ গোপন সূত্রে সংবাদ পায় কক্সবাজারের এক নারী মাদক ব্যবসায়ী পেটের ভেতরে বিশেষ কায়দায় ইয়াবা নিয়ে ময়মনসিংহে বিক্রি করতে এসেছেন। এই খবরের ভিত্তিতে ডিবির এসআই মনিরুজ্জামান ও এএসআই মঞ্জুরুল আলম ফোর্সসহ বিকেলে দিঘারাকান্দা বাইপাস মোড়ে রেজা সিএনজি ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে নারী মাদক ব্যবসায়ী আয়শা সিদ্দিকা ওরফে সামিকে আটক করে।

পরে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি পুলিশকে জানান, তার পেটের ভেতর দুই হাজার পিস ইয়াবা রয়েছে। যা পৃথক ৪০টি করে পুটলা বানিয়ে অভিনব কায়দায় গিলে ফেলেছেন এবং তা পেটের মধ্যেই রয়েছে। পরে ডিবি পুলিশ ওই নারীকে পায়খানা তরল হওয়ার জন্য ওষুধ খাওয়ায়। একপর্যায়ে পায়খানার সঙ্গে পরপর পলিথিনে মোড়ানো ৪০টি পুটলা বের হয়ে আসে। পরে ডিবি পুলিশ পুটলাগুলো খুলে প্রতিটি পুটলাতে ৫০টি করে ইয়াবা পায়।

ওসি জানান, পুটলা বানিয়ে পেটের মধ্যে দুই হাজার পিস ইয়াবা বহনের ঘটনা ময়মনসিংহে এই প্রথম। আটক নারীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।