মানচিত্রের দাগ – আকতার নুরের কবিতা

একটি প্রাইভেট কার, বিচার ও রায়!

মানচিত্রের দাগ

আকতার নুর

দেখো তো মা অল্পদিনেই বাড়ি ফিরে এলাম,
এই তো সেদিন তুমি সহ বাসস্ট্যান্ডে গেলাম!
তোমায় ছেড়ে থাকা যে দায় ঐ শহরে একা-
শহর তো নই নরক যেনো, নাম দিয়েছে ‘ঢাকা!’

হুহু করে কাঁদছো কেনো মাগো? কোন বেদনার নীলে?
কোন ব্যথায় যে পাথর হলে তুমি? আঘাত পেয়ে দিলে?

ভয় পেয়েছো মাগো? আমার দেহে কীসের দাগ?
ভয় পেয়োনা মাগো, এসব কেবল মানচিত্রের আঁক।
ফারাক্কার ঐ বাঁধ খুলেছে দেখো, তুমুল জলের স্রোত;
নদীর দৃশ্য আঁকলো গায়ে আমার, শিল্পের মত নিঁখুত।

হুহু করে কাঁদছো কেনো মাগো? কোন বেদনার নীলে?
কোন ব্যথায় যে কাতর হলে মাগো? আঘাত পেয়ে দিলে!
_______________________________________

একি বাবা তুমিও কী কাঁদো? তোমার চোখে পানি?
হাসি পাচ্ছে খুবই, তোমায় কভু এমন তো দেখিনি!
তুমি-ই তো বলেছিলে আমায়, ভুলে গেছো কথা?
“পুরুষ চোখে অশ্রু বেমানান, যতই লাগুক ব্যথা!”

গুমরে গুমরে কাঁদছো কেনো বাবা? কীসের অার্তনাদে?
ভুলে গ্যাছো পুরুষ কেমন হয়? তারা, অশ্রুবিনেই কাঁদে।

বাবা, বড় হলে আমার কাঁধেই চড়বে ভেবেছিলে?
চড়বে কী আর? তোমায় আমি সেই সুযোগ তো দিলে!
বাবা তুমি কান্না থামাও প্লিজ, নাওনা এবার কাঁধে
খানিক পরেই ভেসে যাবে সবই, ফেনী নদের বাঁধে।

গুমরে গুমরে কাঁদছো কেনো বাবা? কীসের অার্তনাদে?
ভুলে গ্যাছো পুরুষ কেমন হয়? তারা, অস্রুবিনেই কাঁদে।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!