পেকুয়ার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রাজুর উবার রাইড শেয়ারিং ‘ভন্ডামি’!

পেকুয়ার দুইবারের উপজেলা চেয়ারম্যান রাজু যখন ‘উবার’ চালক!

কক্সবাজার জেলার উপকূলীয় উপজেলা পেকুয়ার টানা দুইবার নির্বাচিত সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেফায়েত আজিজ রাজুর ‘উবার’ রাইড শেয়ারিংকে জীবিকা নির্বাহের পথ হিসেবে বেছে নেয়ার ঘটনাকে ‘ভন্ডামি’ বলে দাবি করেছেন এক পাঠক। ওই পাঠক শেফায়েত আজিজ রাজুর এই ঘটনাকে বেকার যুবকদের সাথে ‘মশকরা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

শেখ মো: রুবেল নামের কক্সবাজার ভিশন ডটকমের ওই পাঠক সাবেক চেয়ারম্যান ও পেকুয়া উপজেলা বিএনপির বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক শেফায়েত আজিজ রাজুর কর্মকান্ডকে ‘ভন্ডামি’ বলার পেছনে ৯টি কারণ ব্যাখ্যা করেছেন।

তার দাবি, শেফায়েত আজিজ রাজু জমিদার পরিবারের সন্তান। তাঁর রয়েছে চিংড়িঘের ও লবণ মাঠ প্রকল্প। তিনি প্রচুর ভূ-সম্পদের মালিক। তাঁর ব্যবসায়িক পার্টনার মহেশখালীর সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু বকর ছিদ্দিক।

সেই পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যটি কক্সবাজার ভিশন ডটকম পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

‘সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জমিদার বাড়ির রাজুর পাঠাও উবার রাইড শেয়ারিং ভন্ডামিঃ

১) রাজু বর্তমানে সে ২৫/৩০ হাজার টাকার বাসায় ভাড়া থাকেন চট্টগ্রামের চাঁদগাও এর ১২ নম্বর রোডে।

২) তার বাবা সাবেক সাংসদ জনাব মাহমুদুল করিম চৌধুরী।

৩) বাবার কাছ থেকে পাওয়া সম্পত্তির ১০০ কানির উপর।

৪) ৩০ একরের সরকারি লিজে চলছে লবণের প্রজেক্ট।

৫) ৩০ একর সরকারি লিজের জমিতে চলছে চিংড়ি প্রজেক্ট।

৬) সে বর্তমানে পেকুয়া উপজেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক।

৭) কক্সবাজার সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান লুতু মিয়ার আপনা ভাগিনা এই রাজু, লুতুমিয়ার এক ছেলে মানে রাজুর কাজিন বর্তমানে আওয়ামী লীগ/যুবলীগের নেতা তবে লুতুমিয়া জাতীয় পার্টি করতো।
এই লুতু মিয়া রাজুর মা’কে ১৬ কানি সম্পত্তি দেন অর্থাৎ নানার বংশ থেকে সে পায়।

৮) রাজুর আপন খালার জামাই মানে খালু মহেশখালীর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিকি যিনি অনেল সম্পত্তির মালিক ও রাজুর সাথে ব্যবসা পার্টনার।

৯) সে যখন উপজেলা চেয়ারম্যান তখন তার এমপি ছিল তার নেতা খালেদা জিয়ার এ পি এস সালাউদ্দিনের স্ত্রী হাসিনা আহমদ ও পরের বার এমপি ছিল জাতীয় পার্টির ইলিয়াস। সে সময় সে অনেক টাকার মালিক বনে যায় যদিও পারিবারিক ভাবেও অনেক সম্পত্তির মালিক সে।

কেবল মাত্র সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য সে উবার পাঠাও রাইড শেয়ারের নাটক করছে যা হাজার বেকার যুবকদের সাথে মশকরা ছাড়া আর কিছুই না। আর পাঠাও উবার কর্তৃপক্ষও তাদের ব্র‍্যান্ডিংয়ের জন্য রাজুর এই ভন্ডামিকে ক্যাশ করছে।

তবে এটাও সত্য এলাকায় তার রাজনৈতিক অবস্থান অনেক ভাল। তবে সে এই ভন্ডামির আশ্রয় না নিলেও পারতো….’

তবে এ ব্যাপারে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শেফায়েত আজিজ চৌধুরী রাজুর বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।