টুঙ্গিপাড়া থেকে এসে কক্সবাজারে চাকুরির নামে প্রতারণা ‘বিএমএম ফাউন্ডেশনে’র, আটক চেয়ারম‌্যানসহ ৪

টুঙ্গিপাড়া থেকে এসে কক্সবাজারে চাকুরির নামে প্রতারণা ‘বিএমএম ফাউন্ডেশনে’র, আটক চেয়ারম‌্যানসহ ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার ঠিকানা দিয়ে প্রতিষ্টিত ‘বিএমএম ফাউন্ডেশন’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরির নামে প্রতারণার অভিযোগে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের খুরুশকুল রাস্তার মাথা সংলগ্ন শহীদ তিতুমির ইনস্টিটিউট (পরীক্ষা কেন্দ্র) থেকে তাদের আটক করা হয়। এসময় পরীক্ষার খাতা, প্রশ্নপত্রসহ আনুষঙ্গিক সরঞ্জামও জব্দ করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন কথিত প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান এস এম মাসুম বিল্লাহ, ফিন্যান্স অফিসার শাহাদাত হোসেন খান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জালাল উদ্দিন ও মোহাম্মদ ইউনুস।

পরীক্ষার্থীদের অভিযোগের পর কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক প্রদীপ কুমারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যাযন।

সূত্র মতে, বিএমএম ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা পরীক্ষা নিতে গেলেও স্বপক্ষে কোন ডকুমেন্টস দেখাতে পারেনি। বরং পরীক্ষার আগেই পরীক্ষার্থীদের হাতে হাতে উত্তরপত্র পৌঁছে গেছে। যা দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে পরীক্ষার্থীরা।

টুঙ্গিপাড়া থেকে এসে কক্সবাজারে চাকুরির নামে প্রতারণা ‘বিএমএম ফাউন্ডেশনে’র, আটক চেয়ারম‌্যানসহ ৪

জানা গেছে, বিএমএম ফাউন্ডেশনে তিন পদে ১৪ জনকে চাকুরি দেয়ার নামে প্রায় ১২০০ জনকে পরীক্ষায় আহ্বান করা হয়। এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার তারিখ, সময় ও স্থান জানিয়ে দেয়া হয়। তবে সকাল ১০টায় নির্ধারিত কেন্দ্রে পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও পরীক্ষা শুরুর আগে প্রত্যেকজন থেকে ৩০০ টাকা করে রেজিস্ট্রেশন ফি দাবি করে আয়োজকরা। অথচ পরীক্ষার আগে কোন আবেদনকারীকে টাকার বিষয়ে জানানো হয়নি বলে অভিযোগ পরীক্ষার্থীদের।

সুত্র মতে, রেজিষ্ট্রেশনের নামে টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন পরীক্ষার্থীরা। এরপর পরীক্ষা কেন্দ্রের ভেতরে আটকে রাখা হয় আয়োজকদের। বাইরে প্রতিবাদ ও স্লোগানে মুখরিত করে তুলে শত শত শিক্ষার্থী ও বেকার যুবক।

টুঙ্গিপাড়া থেকে এসে কক্সবাজারে চাকুরির নামে প্রতারণা ‘বিএমএম ফাউন্ডেশনে’র, আটক চেয়ারম‌্যানসহ ৪

রাঙামাটি থেকে বিধান চাকমা, ম্যানশন চাকমা, ইচ্ছে চাকমা, চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে রেজাউল করিম, সদরের পিএমখালী থেকে ফয়সাল মাহমুদ, রফিক বিন সাঈদ, রিদুয়ানের মতো অন্তত এক হাজার বেকার যু্বক পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন ওই প্রতিষ্টানের নিয়োগ পরীক্ষায়। যারা চাকুরির জন্য গিয়ে প্রতারিত হলেন।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, পরীক্ষার নামে প্রতারণার অভিযোগে চারজনকে আটক করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে পরীক্ষা সরঞ্জামাদি।

তিনি জানান, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কক্সবাজার ভিশন.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ
error: Content is protected !!