দুই ইউনিয়নে উপ-নির্বাচন

টেকনাফের হ্নীলায় ত্রিমুখী লড়াইয়ে রাশেদ জালাল ও জাহাঙ্গীর

টেকনাফের হ্নীলায় ত্রিমুখী লড়াইয়ে রাশেদ জালাল ও জাহাঙ্গীর

নুরুল হক
নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকনাফ
কক্সবাজার ভিশন ডটকম

বুধবারের দিনগত রাত পোহালেই আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) টেকনাফ উপজেলার দুই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্টিত হবে। ইতিমধ্যে ভোটগ্রহণের সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার (২৪ জুলাই) দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন হল রুম থেকে প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা ব্যালট ও সরাঞ্জাম বুঝে নিয়ে স্ব স্ব কেন্দ্রে চলে গেছেন। দুই ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং সংরক্ষিত তিন নারী সদস্য প্রার্থী হয়ে ভোটারদের রায়ের প্রত্যাশা করছেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে স্ব স্ব কেন্দ্রে উপজেলার দুই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান ও নারী সদস্য পদে ভোটগ্রহণ শুরু হবে। তা বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে।

উপজেলা নির্বাচন অফিসের তথ্য মতে, উপজেলার দুই ইউনিয়নে তিনজন চেয়ারম্যান ও তিনজন সংরক্ষিত নারী প্রার্থী রয়েছেন। এতে ১২টি কেন্দ্রের মধ্যে কিছু কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

হ্নীলা ইউনিয়নে ভোটার ২৫ হাজার ২০৩ জন। এই ইউনিয়নে নয়টি কেন্দ্রের মধ্যে চিহ্নিত কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে ধরা হয়েছে। এতে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদন্ধিতা করছেন। এরা হলেন রাশেদ মাহমুদ আলী (নৌকা), জালাল উদ্দীন চৌধুরী (আনারস) ও মীর মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (মোটর সাইকেল)।

হ্নীলায় চেয়ারম্যান পদে ত্রিমূখি লড়াইয়ের সম্ভবনার কথা বলছেন সাধারণ ভোটাররা। তিন প্রার্থীর মধ্যে রাশেদ মাহমুদ আলী সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আলীর ছেলে। এছাড়া জালাল উদ্দীন চৌধুরীও সাবেক সাংসদ মরহুম গফুর মিয়ার ছেলে। তিনি এই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন। আরেক প্রাথী মীর মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের বাবা মীর কাশেমও এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। সব মিলিয়ে লড়াই জমজমাট হবে এমনটি আশা এলাকাবাসীর।

অন্যদিকে সাবরাং ইউনিয়নে সংরক্ষিত নারী আসন ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডে ভোটার রয়েছেন ৯ হাজার ৫৬৬ জন। এই আসনের তিনটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এই নারী আসনে ৩ জন প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এরা হলেন আমেনা খাতুন (হেলিকপ্টার), ছেনুয়ারা বেগম (সূর্যমূখী ফুল) ও শাহেনা বেগম (মাইক)।

ওই সংরক্ষিত আসনের তিন নারী প্রার্থীই এলাকায় পরিচিত মুখ। তবে এ সময়ে শিক্ষিত নারী এলাকায় প্রয়োজন রয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে ভাল ও সুশিক্ষিত নারীকে ভোট প্রয়োগ করবেন এমনটা জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

টেকনাফ উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকতা মুহাঃ আবুল মনসুর জানান, টেকনাফে দুই ইউপির উপ-নিবাচন সুষ্টু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন করতে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতি কেন্দ্রে পুলিশ, আনাসার সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবেন। তাছাড়া নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে মোবাইল টিম, র‌্যাব ও বিজিবির একাধিক টিম কেন্দ্রের নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকবেন।

উল্লেখ্য, টেকনাফের হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান এইচ কে আনোয়ার ও সাবরাং ইউপির সংরক্ষিত নারী সদস্য আয়শা বেগমের মৃত্যুর ফলে নির্বাচন কমিশন এই দুই আসন শূণ্য ঘোষনা করে। পরে উপ-নির্বাচনের তফশীল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত তফশীল অনুযায়ী বৃহস্পতিবার যথাসময়ে উপ-নির্বাচন অনুষ্টিত হচ্ছে।