নুনিয়াছড়ায় পুলিশের ‘কমান্ডো’ অভিযানে গ্রেপ্তার হলো মাদক ব্যবসায়ী দম্পতি

কক্সবাজার শহরের উত্তর নুনিয়াছড়া এলাকার শেষপ্রান্ত ঠুটিয়াপাড়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এক চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী দম্পতিকে। কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ অনেকটা কমান্ডো স্টাইলে অভিযান চালিয়ে ওই দম্পতিকে জনতার সহায়তায় গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।
ধৃত ওই মাদক ব্যবসায়ী দম্পতি হল মোঃ জামাল ওরফে বাইট্টাইয়া (৫০) ও তার স্ত্রী নুর জাহান (৪৫)। এরা দীর্ঘদিন ধরে ফিশারি ঘাট এলাকায় অবস্থান করে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন। পরে তারা ঠুটিয়াপাড়া এলাকায় এসে তাদের আস্তানা গড়ে তুলে।
কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ওই অভিযান চালায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, পুলিশের দুটি গাড়ি ছাড়াও বেশ কয়েকটি মোটর সাইকেলে অস্ত্র সজ্জিত হয়ে পুলিশ এই অভিযান চালিয়েছে।
সূত্র মতে, কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক মোঃ ইয়াছিনের নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়। তবে এই অভিযানের সময় কক্সবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাহেনা আক্তার পাখি ও ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।
্স্থানীয় অধিবাসীরা জানিয়েছেন, মোঃ জামাল ওরফে বাইট্টাইয়া ও তার স্ত্রী নুর জাহান ঠুটিয়াপাড়া এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদকের আস্তানা গড়ে তোলায় এলাকার তরুণরা মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছেন। এই দম্পতির গ্রেপ্তারে এলাকাবাসীর মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।
তবে এলাকাবাসী মনে করেন, ঠুটিয়া পাড়া তথা পুরো নুনিয়াছড়া মাদকের আস্তানা হিসাবে ‘দ্বিতীয় টেকনাফ’ নামে পরিচিতি পেয়েছে। এখানকার বেশ কিছু তরুণ, রাজনৈতিক কর্মী ইয়াবা ব্যবসায় জড়িয়ে অল্প দিনেই আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হয়ে উঠেছেন। এদের গ্রেপ্তার করা না হলে এই এলাকায় মাদক নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না।
তারা বলেন, যারাই মাদক ব্যবসায় জড়িত, নিয়মিত মাদকসেবী তারাই এখন উত্তর নুনিয়াছড়া এলাকায় মাদক বিরোধী ‘আন্দোলনের নেতা’ হয়ে উঠেছেন। এই নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে এলাকায় হাস্যরসের ঘটনা তৈরী হয়েছে।
এদিকে সদর থানা পুলিশের পরিদর্শক (অপারেশন) মোঃ ইয়াছিন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ধৃত মাদক ব্যবসায়ী দম্পতির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তিনি জানান, এই দম্পতিকে দীর্ঘদিন ধরে পুলিশ খুঁজছিল। অবশেষে তাদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে।